রোহিঙ্গা ইস্যুতে আলেমদের অবদান মূলধারার মিডিয়া এড়িয়ে যাচ্ছে : মাওলানা মামুনুল হক

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

রোহিঙ্গা ইস্যুতে দেশের আলেম সমাজের নেতৃত্বে ব্যাপকহারে যে ত্রাণ তৎপরতা পরিচালিত হচ্ছে, তা মূলধারার মিডিয়াগুলো সেভাবে প্রচার করছে না বলে মন্তব্য করেছেন মাওলানা মামুনুল হক।

তিনি বলেন, নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলিমদের সহযোগিতায় আলেমদের অসামান্য অবদান জাতির সামনে তুলে ধরা আবশ্যক। কেননা এতে আলেমদের সামাজিক অবস্থান ও কাজের পরিধি বিস্তৃত হবে। ভবিষ্যতে ধর্মীয় কাজের ক্ষেত্রও প্রস্তুত হবে।

গতকাল ঢাকার হোটেল বাসমতিতে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

বৈঠকের শুরুতে মাওলানা মামুনুল হক উলামায়ে কেরামের অবদান তুলে ধরে বলেন, রোহিঙ্গাদের আগমনের একদম শুরুতে যে মানবিক বিপর্যয় শুরু হয়েছিলো তা কাটিয়ে ওঠা গেছে আলেমদের কারণেই। তারা প্রথম দিন থেকে এ পর্যন্ত নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। কোনো সন্দেহ ছাড়াই বলা যায় এ ক্ষেত্রে আলেমদের অবদান ৯৫ ভাগ।

তিনি আরও বলেন, রোহিঙ্গাদের আর্থিক সংস্থানের কথা চিন্তা করে আলেমরা সেবামূলক কাজে তাদের নিয়োজিত করেছেন। এতে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাদের কর্মসংস্থান হয়েছে। এর বাইরে আলেমরা যে মসজিদ মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করেছেন তাতেও রোহিঙ্গা আলেমদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ফলে তাদেরও সম্মানজনক কাজের সুযোগ হয়েছে।

মাওলানা মামুনুল হক বলেন, আলেমগণ সেখানে গণমানুষের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। বাংলাদেশের সর্বশ্রেণির মানুষ তাদের উপর আস্থা রেখেছেন বলেই তারা এতো বিশাল একটি মানবিক সেবা দিতে পারছেন। রোহিঙ্গা ইস্যু বাংলাদেশের জনগণকে মানবিকতার জায়গায় একত্র করেছে। আর এর পুরো অবদান আলেমদের।

তিনি আরও বলেন, আলেমরা বিভিন্ন ব্যানারে কাজ করছেন। কেউ দলীয় ব্যানারে, কেউ মাদরাসার ব্যানারে, কেউ মসজিদের ব্যানারে, কেউ সামাজিক সংগঠনের ব্যানারে, কেউ কোনো ব্যানারের তোয়াক্কা না করেই নিজ উদ্যোগ ও ব্যবস্থাপনায় কাজ করছেন।


মাওলানা ওয়ালিউল্লাহ আরমানের সঞ্চালনায় বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট লেখক ও সংগঠক মাওলানা রুহুল আমীন সাদী, নুরবিডি ডটকম এর সম্পাদক সৈয়দ শামসুল হুদা, ইনসাফ-এর সম্পাদক সাইয়েদ মাহফুজ খন্দকার, আলোকিত বাংলাদেশ এর সহসম্পাদক আলী হাসান তৈয়ব, আওয়ার ইসলাম এর বার্তা সম্পাদক আতাউর রহমান খসরু, সাবেক ছাত্রনেতা তোফায়েল গাজালী, দৈনিক নয়াদিগন্ত এর সাংবাদিক খালেদ সাইফুল্লাহ, ইনসাফ-এর যুগ্ম-বার্তা সম্পাদক আলাউদ্দিন বিন সিদ্দিক প্রমুখ।