বিটকয়েন মূল্যে ‘ধপাস’

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

বুধবার এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ মূল্যে উঠে ভার্চুয়াল মুদ্রা বিটকয়েনের মূল্য। কিন্তু এই ভার্চুয়াল মুদ্রার ক্লোন ‘বিটকয়েন ক্যাশ’ নামের আরেকটি ভার্চুয়াল মুদ্রার জন্য অনেক ব্যবসায়ী বিটকয়েন ব্যবহার ছেড়ে দেওয়ায় শুক্রবার এর মূল্য সর্বোচ্চ মূল্যে থেকে এক হাজার ডলারেরও বেশি কমে যায়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এক বিটকয়েনের মূল্য ছিল সাত হাজার ডলারের নিচে।

 

সাম্প্রতিক সময়গুলোতে বিটকয়েনের মূল্য দ্রুত বেড়েছে। চলতি বছরের শুরুতে থেকে এ পর্যন্ত এর দাম বেড়েছে সাত গুণ। বর্তমান মূল্যের হিসাবে বিটকয়েনের মোট বাজারমূল্য ১০ হাজার কোটি ডলারের বেশি বলে উল্লেখ করা হয়েছে রয়টার্স-এর প্রতিবেদনে।

বুধবার গ্রিনিচ মান সময় সন্ধ্যা ছয়টায় এক বিটকয়েনের মূল্য হয়ে যায় ৭,৮৮৮ ডলার, যা এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ।

কিন্তু দ্রুতই পতন হয় এই মূল্যের। শুক্রবার গ্রিনিচ মান সময় বেলা দেড়টার দিকে এই মূল্য এসে ঠেকে ৬৭১৮ ডলারে। বিকাল পৌনে পাঁচটার মধ্যে এর দাম আবার শুরু বাড়তে শুরু করে, সে সময় এক বিটকয়েনের দাম হয় ৬,৮৮০ ডলার। কিন্তু এই দামও সেদিনের শুরুর তুলনায় চার শতাংশ কম ছিল।

ক্রিপ্টোকারেন্সি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান এইডু’র প্রধান নির্বাহী থমাস বারটানি বলেন, “বিটকয়েন সব সময় বাড়ছে আর কমছে।” এইডু হচ্ছে এই খাতের প্রথম স্টার্টআপ যারা ব্যবসা-বাণিজ্যবিষয়ক মার্কিন দৈনিক ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল-এ পুরো পৃষ্ঠা নিয়ে বিজ্ঞাপন দিয়েছে।

চলতি বছর ১ অগাস্ট থেকে যাত্রা শুরু করে বিটকয়েনের মতো আরেক ভার্চুয়াল মুদ্রা বিটকয়েন ক্যাশ। এই খাতের খবর প্রকাশকারী সাইট কয়েনমার্কেটক্যাপ-এর সূত্রমতে, শুক্রবার এর দাম ৩৫ শতাংশ বেড়ে প্রতিটি প্রায় ৮৫০ ডলারে বিক্রি হচ্ছিল।