রোহিঙ্গা সংকট; পুরো দায় মিয়ানমার সেনাবাহিনীর : থেরেসা মে

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে

রোহিঙ্গা পরিস্থিতিকে গুরুতর মানবিক বিপর্যয় আখ্যায়িত করে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেছেন, ‘এটিকে জাতিগত নিধনই মনে হচ্ছে।’ তিনি বলেন, এসব ঘটনায় মায়ানমার কর্তৃপক্ষকে, বিশেষ করে দেশটির সেনাবাহিনীকে পুরো দায়–দায়িত্ব নিতে হবে।

সোমবার লন্ডনে শীর্ষ ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে দেওয়া যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রনীতি–বিষয়ক এক বক্তৃতায় থেরেসা মে এসব কথা বলেন। রোহিঙ্গাদের প্রতি মায়ানমার সেনাবাহিনীর বর্বরতার খবরগুলোকে হৃদয়বিদারক বলে মন্তব্য করেন তিনি।

লন্ডনের গিল্ডহলে দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ এ বক্তৃতায় যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী উত্তর কোরিয়া ও মায়ানমারের মতো বড় সমস্যা মোকাবিলায় এশীয় দেশগুলোর সঙ্গে আরও নিবিড়ভাবে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন থেরেসা মে।

রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় মানবিক সহায়তা প্রদানে যুক্তরাজ্য ইতিমধ্যে বড় দাতা হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে উল্লেখ করে মে বলেন, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর জঘন্য ও অমানবিক নিপীড়ন বন্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ঐক্যবদ্ধ করতে যুক্তরাজ্য নেতৃস্থানীয় ভূমিকা পালন অব্যাহত রাখবে। সংকট নিরসনে সম্ভাব্য সব ভূমিকা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘ ও আঞ্চলিক অংশীজনদের সঙ্গে কাজ করবে।

রোহিঙ্গাদের জন্য যুক্তরাজ্য এ পর্যন্ত ৪৭ মিলিয়ন পাউন্ড মানবিক সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে।