ফেসবুক একটা দানব! : বললেন প্রতিষ্ঠানটির সাবেক প্রেসিডেন্ট

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুককে একটা দানব বলে অভিহিত করেছেন প্রতিষ্ঠানটির সাবেক প্রেসিডেন্ট শন পার্কার। তিনি বলেন, ফেসবুক শিশুদের মস্তিষ্কের যে কী ক্ষতি করছে তা শুধু উপরওয়ালাই বলতে পারবেন। অ্যাক্সিওস নামের একটি ওয়েবসাইটকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি একথা বলেন। খবর বিজনেস ইনসাইডারের।

ফেসবুকের সাবেক এই প্রেসিডেন্ট বলেন, এটিকে এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যা মানুষের ‘দুর্বলতাকে’ পুঁজি করে ব্যবসা করছে। পার্কার বলেন, এটা নিয়ে আমি এতটাই উদ্বিগ্ন যে শেষ পর্যন্ত মুখ খুলতে বাধ্য হলাম।

পার্কার বলেন, ফেসবুকের মতো এ ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তৈরির পেছনে মূল যে উদ্দেশ্য কাজ করেছে তাহলো যতটা সম্ভব মানুষের সময় এবং মনোযোগ কেড়ে নেয়া। প্রতি মুহূর্তেই মস্তিষ্কে ডোপামিনের মতো এক ধরনের উত্তেজনা কাজ করে যে কেউ পোস্ট বা ছবিতে লাইক বা কমেন্ট করলো কিনা অথবা কেউ নতুন কিছু পোস্ট করলো কিনা। আর এর মাধ্যমেই ব্যবহারকারীরা এখানে কনটেন্ট বাড়িয়ে চলেছে।

পার্কার আরো বলেন, এটির উদ্ভাবক মার্ক, কেভিন সিস্ট্রোম ও আমি। আমরা সবাই এই ব্যাপারটি ভালোভাবেই বুঝেছিলাম। কিন্তু তা সত্ত্বেও আমরা এই কাজটি করেছি।

তবে পার্কারের এই বক্তব্য নিয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেনি ফেসবুক।

ফেসবুক আজ যে অবস্থানে এসেছে সেটির পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে পার্কারের। ফেসবুক প্রতিষ্ঠার এক বছরের মাথায় প্রতিষ্ঠানটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে যোগদেন তিনি। প্রথমদিকে জাকারবার্গ ফেসবুক নিয়ে খুব বেশি আশাবাদী না থাকলেও তখনই এর ভবিষ্যৎ দেখেছিলেন পার্কার। প্রথম বিনিয়োগকারী হিসেবে পিটার থিয়েলকে ফেসবুকে বিনিয়োগ করাতেও রাজি করান পার্কার।