ট্রাম্প পরমাণু হামলার আদেশ দিলে তা প্রতিহত করা হবে: মার্কিন জেনারেল

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যদি অবৈধভাবে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের আদেশ দেন তবে তা প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন এয়ারফোর্সের জেনারেল জন হেইটেন। অবৈধ সিদ্ধান্তের জন্য প্রেসিডেন্টকে জেলে যাওয়ার কথা স্মরণ করিয়ে দিতে ভুলবেন না বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।

কানাডার নোভা স্কটিয়াতে হ্যালিফ্যাক্স আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা ফোরামে শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, যদি কখনও প্রেসিডেন্টের তরফ থেকে এমন কোনো আদেশ আসে তার উত্তরে কী বলবেন সে বিষয়ে তিনি অনেক ভেবেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের পরমাণু কর্মসূচির দেখভালের দায়িত্বে থাকা শীর্ষ এ সেনা কর্মকর্তা বলেন, ‘কিছু মানুষ মনে করে যে আমরা বোকা। অথচ এ বিষয়গুলো নিয়ে আমাদের অনেক ভাবতে হয়। যখন আপনি এমন দায়িত্বশীল পদে থাকবেন তখন সংশ্লিষ্ট নানা বিষয়ে চিন্তা না করে থাকা কিভাবে সম্ভব?’

হঠাৎই প্রেসিডেন্টের তরফ থেকে পরমাণু হামলার নির্দেশ হলে তার প্রতিক্রিয়া কি হবে সে প্রসঙ্গেই জন হেইটেনের এই উক্তি।

পরবর্তীতে, তার এই বক্তব্যের ভিডিও ফেসবুকে প্রকাশের পর হেইটেন সেখানে লেখেন, একজন শীর্ষ নিরাপত্তা কর্মকর্তা হিসেবে আমি প্রেসিডেন্টকে পরামর্শ দিয়ে থাকি। অন্যদিকে, কী করতে হবে সে বিষয়ে তিনি আমাকে বলে থাকেন।’

পরমাণু হামলা বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার প্রক্রিয়া সম্পর্কে কথা বলেন এয়ারফোর্সের জেনারেল। বলেন, কোনো অবৈধ সিদ্ধান্ত আসলে আমি প্রেসিডেন্টকে অবশ্যই বলবো, এটি সঠিক হচ্ছে না। তখন আমাদের তরফ থেকে পরিস্থিতি বিবেচনায় একাধিক বিকল্প তার সামনে তুলে ধরা হবে। আর যদি একান্তই তিনি কোনো অবৈধ সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেন তবে তাকে স্মরণ করিয়ে দেয়া হবে যে এজন্য তাকে জেলে যেতে হতে পারে।

সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার সাথে যুক্তরাষ্ট্রের উত্তেজনা চরমে উঠেছে। উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উনকে হুঁশিয়ারি দিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়ালে ২৬ মিলিয়ন মানুষসহ উত্তর কোরিয়াকে গুড়িয়ে দেয়া হবে। এমন ঘোষণায় উদ্বিগ্ন হয়ে অনেক সিনেটরই পরমাণু হামলা বিষয়ে প্রেসিডেন্টের ক্ষমতা সীমাবদ্ধ করার প্রস্তাব তোলেন। গত মঙ্গলবার এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে শুনানিও হয়েছে।


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74