রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে চুক্তি সই হতে পারে আজ

নেপিদোতে গতকাল মিয়ানমারের মন্ত্রী কিয়াও তিন্ত সোয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী। ছবি : সংগৃহীত

মিয়ানমারের  আরাকান রাজ্যের গণহত্যা  থেকে বাঁচতে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে আজ বৃহস্পতিবার মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে চুক্তি সই হতে পারে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী।

গতকাল বুধবার মিয়ানমারের রাজধানী নেইপিদোতে এ নিয়ে দীর্ঘ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তবে কয়েকটি বিষয়ে এখনো একমত হতে পারেনি দুই দেশ।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী জানিয়েছেন, আজ এই বিষয়গুলো সমাধান করে চুক্তি সই হতে পারে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বুধবার আমাদের মধ্যে ভালো আলোচনা হয়েছে। আমরা আশা করছি, বৃহস্পতিবার একটি চুক্তি সই হবে। এটা এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।

এর আগে স্টেট কাউন্সিলরের কার্যালয়ের মন্ত্রী কেয়াউ তিন্ত সোয়ের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যুসহ দ্বিপক্ষীয় স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।
পররাষ্ট্র সচিব এম শহিদুল হক, মিয়ানমারে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম সুফিউর রহমান এবং স্বরাষ্ট্র ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রতিনিধিরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

গেলো মঙ্গলবার নেপিদোতে আসেম সম্মেলন শেষে মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সু চি বলেন, মিয়ানমারে ফিরে আসতে ইচ্ছুক রোহিঙ্গাদের কীভাবে ফিরিয়ে আনা হবে তা দুই দেশের বৈঠকে ঠিক করা হবে।

গত ২৫ আগস্ট থেকে রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর নতুন করে হামলা শুরু করে মিয়ানমারের সশস্ত্র বাহিনী। এর ফলে অন্তত ছয় হাজার মুসলমান নিহত ও হাজার হাজার মানুষ আহত হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে অন্তত সাত লাখ রোহিঙ্গা মুসলমান মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থী মানবেতর জীবনযাপন করছে।

মিয়ানমার সরকার রাখাইনে সহিংসতা বন্ধের দাবি করলেও বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা গেছে, সেখানে মুসলমানদের ওপর হত্যা-নির্যাতন অব্যাহত রয়েছে।


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74