বালিথুবা অদুদীয়া দাখিল মাদ্রাসার কল্যাণ তহবিল থেকে শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আলাউদ্দিন বিন সিদ্দিক


চাঁদপুর ফরিদগঞ্জের বালিথুবা সামছুলিয়া অদুদীয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষকদের অর্থায়নে পরিচালিত ‘কল্যাণ তহবিল’ থেকে এবতেদায়ী প্রথম থেকে ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীদেরকে বৃত্তি প্রদান করা হয়।

গত বুধবার বেলা ২ ঘটিকায় মাদ্রাসার সভা কক্ষে মাদ্রাসার ম্যানিজং কমিটি, শিক্ষক, এলাকার গণ্যমান্য, অভিবাভক, শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে এ বৃত্তি প্রদান করা হয়।

মাদ্রাসা ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য- বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও শিক্ষানুরাগী মো: কামাল হোসেন এবং মাদ্রাসা সুপার মাওলানা মোঃ মাহবুবুর রহমানের পরিচালনায় ২য় বারএর মত এবার বৃত্তি প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে এবতেদায়ী প্রথম শ্রেণি থেকে ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীদের প্রত্যেককে মাসিক ১০০ (একশত) টাকা করে ফেব্রুয়ারি ২০১৭ইং থেকে- জুন ২০১৭ইং পাঁচ মাসের ৫০০ (পাঁচ শত) টাকা করে শিক্ষার্থীর হাতে তুলে দেওয়া হয়।

বৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের কয়েকজন অভিভাবক জানান, এই বৃত্তি চালু করায় আমাদের সন্তানরা এবং আমরা খুশী। এতে করে আমাদের সন্তানরা মাদ্রাসায় পড়ার জন্য আগ্রহী হয়ে উঠবে বলে আশা করছি, এবং আর্থিকভাবে কিছুটা হলেও স্বচ্ছল হবে বলে আশা করছি।

অনুষ্ঠানে ম্যনেজিং কমিটির সম্মানিত সদস্য মো: কামাল হোসেন বলেন, মাদ্রাসা শিক্ষায় একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ হলো এই বৃত্তি প্রদান , কেননা ইতিপূর্বে চাঁদপুর জেলা কিংবা সমগ্র দেশে এরূপ ভাবে মাদ্রাসা বা স্কুলে এভাবে শিক্ষকদের নিজস্ব অর্থায়নে বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে কিনা, তা আমার জানা নাই। এটা ঐতিহ্যবাহী বালিথুবা সামছুলিয়া অদুদীয়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষকরা করে দেখিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, যতদিন এই মাদ্রাসা ঠিকে থাকবে, আমরা এই সম্মানিত শিক্ষকদের কাছে কৃতজ্ঞ হয়ে থাকবো।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী সুপার- এ. কে. আবুল কালাম, সিনিয়র শিক্ষক- মাওলানা মজিবুর রহমান, সিনিয়র শিক্ষক মোঃ আবুল হাছান (বাংলা) মো. আব্দুল হাই, । এবতেদায়ী শাখার ভারপ্রাপ্ত মাওলানা দেলোয়ার হোসেন, অফিস সহকারী মো: এমরান হোসেন, জুনিয়ার সহকারি শিক্ষিকা বিবি হাওয়া আক্তারসহ ছাত্র-ছাত্রী ও অবিভাবকবৃন্দ।

সমাপনী বক্তব্যে মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, মাদ্রাসা শিক্ষা একটি আধুনিক ধর্মীয় শিক্ষা, মাদ্রাসা শিক্ষাকে বাঁচাতে হলে আমাদের কোমলমতি শিশুদেরকে পড়াশুনার খরচ চালানোর জন্য আমাদের এ বৃত্তি চালু রাখতে হবে।