আল মাদানী ফাউন্ডেশনের আয়োজনে ঢাকায় ইসলামী সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আলাউদ্দিন বিন সিদ্দিক


সেবামূলক সংস্থা আল মাদানী ফাউন্ডেশনের আয়োজনে পুরান ঢাকার মুগদায় তিনদিন ব্যাপী ইসলামী মহাসম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল (২৩ডিসেম্বর ) শনিবার  মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকীর আখেরী মুনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয় সম্মেলনটি। এবারের সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন দেশ ও দেশের বাহিরের প্রধান প্রধান ওয়ায়েজগণ।

সম্মেলনের প্রধান মেহমান ছিলেন, দারুল উলুম দেওবন্দের সিনিয়র মুহাদ্দিস মুফতী আমিন পালনপুরী ও সৌদি আরবের আওলাদে রাসূল শায়খ সাইয়্যিদ নাসের বিল্লাহ আল-মাক্কী। বিদেশী ওয়ায়েজদের মধ্যে আরো ছিলেন, দেওবন্দের মুহাদ্দিস মাওলানা জামিল আহমদ সাকরাভী, মাওলানা সালমান বিজনূরী।

দেশের বিশিষ্ট ওয়ায়েজদের মধ্যে ছিলেন, মাওলানা জুবায়ের আহমদ আনসারী, মাওলানা ইয়াহিয়া মাহমুদ, মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী ও মাওলানা হাফিজুর রহমান সিদ্দিকী প্রমুখ।

মুগদা হাসপাতালের পাশের সুবিশাল মাঠে আয়োজিত এই সম্মেলনে তিন দিনই সাধারণ ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের উল্লেখযোগ্যহারে অংশগ্রহণ করতে দেখা গেছে। সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, সম্মেলন উপলক্ষে গত তিনদিন এলাকায় উৎসবের আমেজ লক্ষ্য করা গেছে। সম্মেলন মাঠের পাশেই বসে অস্থায়ী বাজার। ধর্মীয় বক্তব্য শুনার পাশাপাশি মুসল্লিদের উৎসবমুখর ভাবে কেনাকাটা করতেও দেখা গেছে।

সম্মেলনের নিরাপত্তা ব্যবস্থাও ছিল চোখে পড়ার মত। কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ছিল পুরো সম্মেলন জুড়ে।

এসব বিষয় ইনসাফের সাথে কথা হয় সম্মেলনের আয়োজক আল মাদানী ফাউন্ডেশনের সভাপতি ইমতিয়াজ উদ্দিন সাব্বিরের সাথে। তিনি জানান, প্রতি বছরের মত এবারও সম্মেলনের আয়োজন করে আল মাদানী ফাউন্ডেশন।

তিনি জানান, মূলত ইসলামের দাওয়াত ও ইসলামের সু-মহান বাণী মানুষের কাছে পৌঁছে দিতেই তাঁরা এই সম্মেলনের আয়োজন করে থাকেন।

ইমতিয়াজ উদ্দিন সাব্বির বলেন, আল মাদানী ফাউন্ডেশন সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক ও সামাজিক একটি সেবা সংস্থা। মূলত মানবতার কল্যাণে কাজ করাই এই সংস্থার উদ্দেশ্য। তারই একটি অংশ হচ্ছে রাজধানী ঢাকাতে এই সম্মেলনটি করা। সম্মেলনের মাধ্যমে আমরা ইসলামের সু-মহান শান্তির বাণী মানুষের কাছে ছড়িয়ে দেয়ে থাকি। গত ৭ বছর যাবত আমরা এ সম্মেলনটি করছি।

তিনি আরো বলেন, প্রতি বারের মত আমরা এবারও চেষ্টা করেছি দেশ ও দেশের বাহিরের প্রধান প্রধান ধর্মীয় আলোচকদের নিয়ে আসতে। এবং আলহামদু লিল্লাহ আমরা সফলও হয়েছি । এবার আমাদের প্রধান মেহমান ছিলেন দারুল উলুম দেওবন্দের সিনিয়র মুহাদ্দিস মুফতী আমিন পালনপুরী ও সৌদি আরবের শায়েখ ডক্টর ফুয়াদ ফজলুল শাওহাবী। এটা আমাদের জন্য বড় পাওয়া।

তিনি জানান, ইসলাম ও মানবতার কল্যাণে আগামীতেও আল মাদানী ফাউন্ডেশন কাজ করে যাবে।