নাড়ির টানে আবার কুতুপালং

নাড়ির টানে আবার কুতুপালং

মাওলানা মামুনুল হক


সংক্ষিপ্ত সফরে আবার এলাম কুতুপালং মধুরছড়া যুব মজলিসের কার্যক্রম পরিদর্শনে ৷ গত রাত বারোটায় ডেমড়া ইমাম ঐক্য পরিষদের মাহফিল শেষে রাতের বাসে কক্সবাজারের পথে রওয়ানা করেছিলাম ৷ আজ আবার কিছুক্ষণ পর ইনশাআল্লাহ ফেরার পথ ধরব ঢাকার ৷

আলহামদুলিল্লাহ, আল্লাহ পাকের অশেষ মেহেরবানীতে সুচারুরূপেই অব্যাহত চলছে যুব মজলিসের মিশন ৷ বিশটি মসজিদ ও পাঁচটি মাদরাসা বর্তমানে চলছে এই কার্যক্রমের আওতায় ৷ ইমাম ২০জন মুআল্লিম৭০জন ও মুআল্লিমা ২জন সর্বমোট ৯২জন রোহিঙ্গা মুহাজিরদের সমন্বয়ে গড়েওঠা সংহত দলটি নিরবচ্ছিন্ন খেদমত আঞ্জাম দিয়ে যাচ্ছে ৷ যুব মজলিসও আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তাদের ন্যূনতম খেদমত করতে ৷ দেশ-বিদেশের দ্বীনদরদী ভাই-বোনদের সহযোগিতায় এ যাবৎ প্রতি মাসেই তাদের হাতে যৎসামান্য হাদিয়া পৌছানোর বন্দোবস্ত আল্লাহ করেছেন ৷

মসজিদঘরগুলোকে টিনশেডে উন্নীত করার ধারাবাহিক কাজ চলছে ৷ প্রায় দশ লক্ষ টাকা ব্যয়ে বৃহত পরিসরের দুটি মসজিদঘরের উন্নয়নের প্রাথমিক পর্ব সমাপ্ত হয়েছে ৷ আরো দুটির কাজ চলছে ৷ পর্যায়ক্রমে সবগুলো মসজিদ-মাদরাসাই উন্নত করা হবে ইনশাআল্লাহ!

প্রতিটি মসজিদ থেকেই শীতবস্ত্র ও অন্যান্য ত্রানসামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে ৷ মাদরাসার তিনশত ও মক্তবের তিনসহাস্রাধীক ছাত্র-ছাত্রীদেরকেও কিছু কিছু সহযোগিতা করা হচ্ছে ৷ যুব মজলিসের কাজের সবচেয়ে বড় সুন্দর দিকটি হল, কর্মরত বিশ মসজিদের ইমাম, মুআল্লিম ও পাঁচ মাদরাসার শিক্ষকদের মধ্যে গড়েওঠা চমৎকার সমন্বয় ও চেইন অব কমাণ্ড ৷ সুশৃঙ্খল এ কাজ পরিচালনায় সার্বক্ষনিক তত্বাবধানের দায়িত্ব অত্যন্ত সফলতার সাথে পালন করছে যুব মজলিসের কেন্দ্রীয় দায়িত্বশীল মাওলানা শরীফ হুসাইন আনসারী ৷ কেন্দ্রীয় দায়িত্বশীলদের পাশাপাশি যুব মজলিস খ শাখার কেন্দ্রীয় টিমও দীর্ঘ মেহনত করেছে কাজের ভীত তৈরি করতে ৷ আর এই কর্মবীর, প্রাণোচ্ছল, সম্ভাবনাময় তরুণ কাফেলার সাথে আমাকেও সংশ্লিষ্ট থাকার তৌফীক আল্লাহ দিয়েছেন ৷ ফালিল্লাহিলহামদু আলা যালিক ৷

শুভানুধ্যায়ীরা দোয়া ও সহযোগিতা অব্যাহত রাখবেন বলে আশা করি ৷ এভাবেই আমরা সম্মিলিত প্রচেষ্টায় রচনা করতে পারি অনুসরণীয় কিছু দৃষ্টান্ত ৷ রাব্বে কারীম! তুমি কবুল কর! আমীন!


ফেসবুক পেজ থেকে