দেশের মানুষ শান্তি ও মুক্তি চায়, ঈমান ও আমলের নিরাপত্তা চায় : চরমোনাই পীর

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |  ডেস্ক রিপোর্ট


ফাইল ছবি

সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও কায়েমী স্বার্থবাদের মুলোৎপাটন করে দেশে ইসলামী সমাজ গঠনে অঙ্গীকার করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম ।

আজ এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, দেশের মানুষ শান্তি ও মুক্তি চায়, ঈমান ও আমলের নিরাপত্তা চায়, বাঁচার মত বাঁচতে চায়। বর্তমান শাসন ব্যবস্থা মানুষের চাহিদা পুরণে ও শান্তি দিতে ব্যর্থ হয়েছে। মানবতার স্থায়ীশান্তি ও সার্বিক মুক্তির লক্ষ্যে মানুষ ঈমান ও ইসলাম নিয়ে বাঁচতে চায়। নিরাপদে বসবাস, ব্যবসা বাণিজ্য, চলা ফেরা করতে চায়। হয়রানী থেকে মুক্ত থাকতে চায়। সন্তানরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার সুষ্টু পরিবেশ চায়। ন্যায় বিচার ও সুশাসন চায়। অবাধ-সুষ্টু নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়। ইজ্জত আব্র“র নিরাপত্তা চায়। চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ ও দখলদারিত্ব মুক্ত বাংলাদেশ চায়।

চরমোনাই পীর বলেন, ২০১৭ সাল ছিল দেশবাসীর জন্য ভয় ও শঙ্কার বছর, গুম ও খুন- আতঙ্কের বছর। বিগত দিনে দেশে যেভাবে সন্ত্রাস, দুর্নীতি, গুম-খুন, ব্যাংক লুটপাটের মতো ঘটনা ঘটেছে, ২০১৮ সালে এমনসব দেশ ও মানবতা বিরোধী কর্মকান্ড পরিহার করে সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও দু:শাসনমুক্ত কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

তিনি বলেন, সর্বোপরি ঈমান, ইসলাম ও মানবাধিকার নিয়ে বাঁচার যে চাহিদা তা পূরণে ক্ষমতাসীনরা কার্যকরী পদক্ষেপ নিবে বলে নতুন বছরে দেশবাসী প্রত্যাশা করে। সরকার যদি নতুন বছরে জনগণের প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হয়ে আগের মতো দুর্নীতি-সন্ত্রাস, দু:শাসন, খুন-গুম, ব্যাংক লুটপাট করে তবে দেশবাসী আগামী নির্বাচনে ব্যালটের মাধ্যমে উচিত শিক্ষা দিবে।