নতুন ত্রুটিতে আক্রান্ত অ্যাপলের সব ডিভাইস

কম্পিউটার চিপগুলোতে নতুন আবিষ্কৃত দুই বড় ধরনের ত্রুটিতে নিজেদের সব আইফোন, আইপ্যাড আর ম্যাক কম্পিউটার আক্রান্ত বলে জানিয়েছে প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যাপল।
সম্প্রতি এক খবরে প্রকাশ, কম্পিউটার থেকে ব্যক্তিগত ডেটা হাতিয়ে নিতে হ্যাকারদের সহায়তা করতে পারে এমন ত্রুটি ঠিক করতে কাজ করছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো। মেল্টডাউন আর স্পেকট্রা নামের ওই দুই ত্রুটি সমাধানে এখন জোরদার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

অ্যাপলের পক্ষ থেকে বলা হয়, তারা ইতোমধ্য কিছু সমাধান বের করেছে আর কোনো ত্রুটি কাজে লাগিয়ে নিরাপত্তা লঙ্ঘনের কোনো প্রমাণ এখনও পাওয়া যায়নি। ‘ক্ষতিকর’ অ্যাপগুলো এড়াতে বিশ্বস্ত উৎস থেকে সফটওয়্যার ডাউনলোডের পরামর্শ দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

অ্যান্ড্রয়েড ফোন বা মাইক্রোসফট সিস্টেম-এর মতো ডিভাইস বা অপারেটিং সিস্টেমগুলোর তুলনায় নিজেদের ডিভাইস আর অপারেটিং সিস্টেম কম লঙ্ঘনযোগ্য বলেই বিশ্বাস করেন অনেক অ্যাপল ডিভাইস ব্যবহারকারী। কিন্তু মেল্টডাউন আর স্পেকট্রা ত্রুটি সব আধুনিক কম্পিউটার প্রসেসিং ইউনিট-এর পাওয়া গেছে। ইনটেল আর এআরএম-এর বানানো মাইক্রোচিপে ওই ত্রুটি পাওয়া গেছে। আর এই দুই প্রতিষ্ঠান মিলেই পুরো বৈশ্বিক কম্পিউটার বাজারের প্রায় পুরোটা সরবরাহ করে থাকে, বলা হয়েছে বিবিসি’র প্রতিবেদনে।

এ নিয়ে অ্যাপলের পক্ষ থেকে এক ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে, “সব ম্যাক সিস্টেম আর আইওএস ডিভাইস আক্রান্ত, কিন্তু এই মূহুর্তে আমাদের গ্রাহকদের উপর প্রভাব রাখছে এমন কোনো লঙ্ঘনের বিষয়ে জানা যায়নি। এই সমস্যা সব আধুনিক প্রসেসরে আছে আর প্রায় সব কম্পিউটিং ডিভাইস আর অপারেটিং সিস্টেম এই সমস্যায় আক্রান্ত।”

ইতোমধ্যে একদম শেষের দিকের আইফোন আর আইপ্যাডগুলোতে অপারেটিং সিস্টেম আপডেট- আইওএস ১১.২ আর ম্যাকবুক ও আইম্যাক-এ ম্যাকওএস ১০.১২.২ আপডেট আনার মাধ্যমে মেল্টডাউন-এর ঝুঁকি ‘কমানোর’ পদক্ষেপ নিয়েছে বলে জানিয়েছে অ্যাপল।

অ্যাপলের স্মার্টওয়াচ অ্যাপল ওয়াচে ইনটেল প্রসেসর ব্যবহার করা হয়নি। এ কারণে এতে এই ত্রুটি নেই বলেও প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়।

স্পেকট্রা-এর জন্য ওয়েব ব্রাউজার সাফারিতে একটি আপডেটের সঙ্গে সমাধান আনা হচ্ছে। ‘আসন্ন দিনগুলোতে’ এটি বের করা হবে।

নিজেদের কোন কোন পণ্য এই ত্রুটিগুলোতে আক্রান্ত তা নিয়ে বিবৃতি দিয়েছে ওয়েব জায়ান্ট গুগল আর সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট।

গুগলের পক্ষ থেকে বলা হয়, বৈশ্বিক বাজারের ৮০ শতাংশের বেশি দখলে রাখা এর অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহারকারীরা সর্বশেষ নিরাপত্তা আপডেট দেয় তবে সেগুলো সুরক্ষিত থাকবে।

মাইক্রোসফট ইতোমধ্যে এদের বিভিন্ন সেবার জন্য সমাধান বের করেছে।