আল্লামা শাহ আহমদ শফী’কে কানাডা সফরের আমন্ত্রণ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |  ডেস্ক রিপোর্ট


হেফাজতের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী’কে কানাডা সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন কানাডা প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক সেক্রেটারী জেমস স্টোন৷ গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় কানাডা সরকারের তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল আমিরে হেফাজতের সাথে সাক্ষাত করতে এসে এ আমন্ত্রণ জানান৷

তারা হলেন কানাডা প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক সেক্রেটারী জেমস স্টোন, কানাডা সরকারের রাজনৈতিক কাউন্সিলর ব্যারি ব্রিস্টম্যান এবং কানাডা হাইকমিশনের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক উপদেষ্টা সৈয়দা শাহনাওয়াজ মোহসিন৷

তারা হেফাজত আমিরের সাথে কুশল বিনিময় করার পর বর্তমান দেশের পরিস্থিতি, হেফাজত, সংখ্যালঘু সম্প্রদায় ও রোহিঙ্গা ইস্যুসহ বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন।
তারা হেফাজত আমিরকে বাংলাদেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অধিকার বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, বাংলাদেশে সংখ্যালঘুরা পূর্ণ অধিকার ভোগ করছে, সরকার সহ দেশের জনগণ তাদের নিরাপত্তা দিয়ে যাচ্ছে, এবং ইসলামও সংখ্যালঘুদেরকে যে অধিকার দিয়েছে এবং নিরাপত্তার বিধান করেছে তা এদেশের মুসলমানরা দিয়ে আসছে৷

প্রতিনিধি দল সন্ত্রাসবাদের ব্যাপারে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ইসলাম সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করে না, অন্যায়ভাবে নিরীহ মানুষ হত্যা, জোর-জুলুম এবং মানুষের ধন-সম্পদ লুন্ঠন ইসলামে জঘণ্য অপরাধ হিসেবে বিবেচিত, এসব অপরাধের জন্য অপরাধের পরিমান বিবেচনা করে ইসলাম শাস্তির বিধানও করেছে৷

তারা রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়েও হেফাজত আমিরের সাথে আলোচনা করেন। আল্লামা শফী বলেন, মিয়ানমারের সরকারী বাহিনী ও স্থানীয় মগদস্যুদের নির্মম পৈশাচিক হত্যাযজ্ঞ থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদেরকে সরকার আশ্রয় দিয়েছে, এবং এদেশের মানুষ বিশেষত আলেম-উলামারা স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে তাদের দিকে সার্বিক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন, এবং এখনো যথাসাধ্য সার্বিক সহায়তা করেই যাচ্ছেন৷

উক্ত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মঈনুদ্দিন রুহী, অর্থ সম্পাদক হাজী মুজাম্মেল হক, মহানগর প্রচার সম্পাদক মাওলানা আ ন ম আহমদ উল্লাহ, মাওলানা আলমগীর, মাওলানা সাদেক উল্লাহ মাওলানা রিয়াদসহ নেতৃবৃন্দ৷

বৈঠক শেষে প্রতিনিধি দল জামেয়া হাটহাজারীর পুরো ক্যম্পাস পরিদর্শন করেন, এবং হেফজ বিভাগে পরিদর্শনে এলে তাদেরকে কোরআন তিলাওয়াত করে শুনানো হয়, এতে তারা দারুণ ভাবে মুগ্ধ হন এবং আনন্দ প্রকাশ করেন৷