ভাগ বাটোয়ারা নিয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ; পাবনা মেডিকেল কলেজ বন্ধ ঘোষণা

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


 ক্যাম্পাসে আধিপত্য বিস্তার ও সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বের জের ধরে পাবনা মেডিকেল কলেজে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে কমপক্ষে আটজন আহত হয়েছেন। তাদের পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে হল ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

তবে কলেজের অধ্যক্ষ মো. রিয়াজুল হক যাদের পরীক্ষা রয়েছে তাদের প্রবেশপত্র দেখে হলে থাকতে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওই সংঘর্ষ হয়। কিন্তু সংঘর্ষের সঙ্গে কে বা কারা জড়িত বা আহতদের নাম বা সংখ্যা বিষয়ে তিনি কিছু বলেননি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সাধারণ শিক্ষার্থীরা জানান, ক্লাব বা সমিতির নামে ছাত্র নেতারা বিভিন্ন ঔষুধ কোম্পানীর নিটক থেকে চাঁদা নিয়ে অনুষ্ঠানের নামে ভাগ বাটোয়ারা করে খায়। মূলত এই চাঁদা নেওয়া নিয়েই এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

সদর থানার ওসি মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, শুক্রবার ভোর থেকে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের কয়েক দফা সংঘর্ষে আহতদের পুলিশ পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। তিনিও কী নিয়ে সংঘর্ষ বাধে সে বিষয়ে কিছু বলতে পারেননি।

ওসি রাজ্জাক বলেন, পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক রাখতে ক্যাম্পাসসহ হাসপাতাল চত্বরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। আর ঘটনা তদন্তে কলেজ কর্তৃপক্ষ তদন্ত দল গঠন করেছে।

অধ্যক্ষ রিয়াজুল হক বলেন, মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক আবু মো. শাফিকুল হাসানকে প্রধান করে তিন সদস্যের এই তদন্ত দল গঠন করা হয়।