আরাকানে ‘গ্যাস টার্মিনাল’ নির্মাণ করতে যাচ্ছে চীন

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট 


মুসলিমদের ওপর নির্মম গণহত্যা পরবর্তী বধ্যভূমিতে পরিণত হওয়া আরাকানে গ্যাস টার্মিনাল নির্মাণ করতে যাচ্ছে চীনা।

শুক্রবার চীনা গণমাধ্যম চায়না ডেইলির বরাত দিয়ে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চাহিদা পূরণে মিয়ানমারে প্রাকৃতিক গ্যাসের নতুন উৎস সন্ধান করছে চীনের সবচেয়ে বড় তেল কোম্পানি চায়না ন্যাশনাল পেট্রোলিয়াম কোরের (সিএনপিসি) একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান। এ লক্ষ্যে মুসলিমদের ওপর নির্মম গণহত্যা পরবর্তী বধ্যভূমিতে পরিণত হওয়া আরাকানে একটি গ্যাস টার্মিনালও নির্মাণ করার কথা ভাবছে চীনা সরকার।

রয়টার্সের ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, মায়ানমার ও চীনের মধ্যে বিদ্যমান গ্যাস পাইপলাইনের সরবরাহ সংকট মেটাতে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

গ্যাস পাইপলাইন প্রকল্পের ভাইস-প্রেসিডেন্ট চেন জিয়াংকুই জানান, সিএনপিসির সহযোগী প্রতিষ্ঠান সিএনপিসি সাউথইস্ট এশিয়া পাইপলাইন কোম্পানি লিমিটেড বর্তমানে মিয়ানমার থেকে পরিচালিত হচ্ছে। এই কোম্পানিটিই অতিরিক্ত গ্যাস সরবরাহের জন্য দেশটিতে নতুন খনির সন্ধানে নেমেছে।

মিয়ানমারের দায়েয়ু ইন্টারন্যাশনালের গ্যাসক্ষেত্র থেকে গ্যাস সরবরাহে ২০১৩ সালের মাঝামাঝি দেশটির সরকারের সঙ্গে চুক্তি করে কোম্পানিটি।

চেন বলেন, মিয়ানমারে নতুন গ্যাসক্ষেত্র খুঁজছে সিএনপিসি। দায়েয়ু ইন্টারন্যাশনাল ও অন্যদের গ্যাসক্ষেত্র থেকেও গ্যাস সরবরাহ ধরে রাখবে তারা। রাখাইনে একটি গ্যাস টার্মিনাল নির্মাণ পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি। মিয়ানমার-চীন পাইপলাইন এখান থেকেই শুরু হয়েছে।