আওয়ামী লীগের সাবেক প্রতিমন্ত্রীর বাড়িতে হামলা-লুটপাট চালিয়েছে যুবলীগ

আহাদ আলী সরকারসাবেক যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগ নেতা আহাদ আলী সরকারের বাড়িতে হামলা ও লুটপাট চালিয়েছে যুবলীগ নেতাকর্মীরা।

এ সময় সাবেক প্রতিমন্ত্রীর মেয়ে, জামাতা ও বাড়ির তত্ত্বাবধায়ককে মারধর করে বাসা থেকে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন তারা।

আহাদ আলী সরকারের পরিবারের সদস্যদের দাবি, লুট হওয়া স্বর্ণালংকারের মূল্য আনুমানিক চার লাখ টাকা।

মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এই হামলার জন্য জন্য স্থানীয় যুবলীগের একটি অংশকে দায়ী করেছেন সাবেক প্রতিমন্ত্রী আহাদ আলী।

আহাদ আলী রাতেই তার বাসায় ফিরে তাৎক্ষণিক সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করেন, পৌর যুবলীগের সদস্য সাব্বির হোসেনের নেতৃত্বে এই হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

নাটোর থানার পুলিশ পরিবারের বরাত দিয়ে জানায়, রাত নয়টার দিকে ছয়-সাত জন যুবক ক্রিকেটের স্ট্যাম্প ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে আহাদ আলীর কানাই খালির বাসভবনের নিচতলায় ঢুকে পড়ে। বাসার তত্ত্বাবধায়ক বাধা দিলে দুর্বৃত্তরা তাকে বেধড়ক পিটায়। তারা বাসার ভেতরে ঢুকে পড়লে আহাদ আলী সরকারের মেয়ে মৌসুমী পারভীন সেখানে এলে তাকেও স্ট্যাম্প দিয়ে পেটায়।

তখন প্রতিমন্ত্রীর দুই জামাতা মাজহারুল ইসলাম ও আশরাফুল ইসলামকেও মারধর করে তারা। এ সময় আহাদ আলী সরকারের স্ত্রী চিৎকার করতে থাকলেও ভয়ে আশ পাশ থেকে কেউ এগিয়ে আসেনি। ততক্ষণে দুর্বৃত্তরা প্রতিমন্ত্রীর বাসায় থাকা স্বর্ণালংকার লুট করে দ্রুত চলে যায়।

এ ব্যাপারে কথা বলতে সাব্বিরের মুঠোফোনে কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে বিপুলসংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। সেখানে পুলিশ পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।