কোটি কোটি কৃষক পরিবার কীভাবে চলছে তার খোঁজ কেউ নিচ্ছেন না: আল্লামা কাসেমী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


ফাইল ছবি

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, দেশে সুশাসন, ইনসাফ ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করতে হলে রাজনীতিতে সৎ নেতৃত্ব ও ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, এখন বক্তৃতার মঞ্চে, পত্রিকার পাতায় এবং টিভি টক শো’তে নেতাদের মুখে দেশপ্রেম ও সুশাসনের ফুলঝুরি শোনা যায়। কিন্তু মাঠ পর্যায়ের চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন। জনগণকে নানাভাবে প্রতারিত করা হচ্ছে। মানুষের মৌলিক অধিকার বলতে এখন কিছু নেই। স্বাধীনভাবে মানুষ নিজের দুঃখ-দুর্দশার কথাও বলতে পারছে না। নাগরিকদের ক্রয়ক্রমতা দিন দিন আওতার বাইরে চলে যাচ্ছে। কৃষক তার উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না। অন্যদিকে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রীর মূল্য লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। দেশে নানা পর্যায়ে ভোগবাদিতার প্রসার ঘটানো হচ্ছে, অথচ দেশের কোটি কোটি কৃষক পরিবার কীভাবে চলছেন, তার খোঁজ কেউ রাখছেন না। গ্রামগঞ্জ ও মফস্বলের মানুষদের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি খুবই করুণ।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, স্বাধীনতার প্রায় অর্ধ্বশত বছর পূর্ণ হতে চলেছে। অথচ এই দীর্ঘ সময়ে রাজনীতিবিদরা জনগণকে স্বাধীনতার কাঙ্খিত সুফল উপহার দিতে পারেননি। তিনি বলেন, স্বাধীনতার সুফল ভোগ করতে হলে ইসলামী হুকুমতের বিকল্প নেই। কারণ, ইসলামেই রয়েছে সুবিচার, সুশাসন ও ইনসাফ প্রতিষ্ঠার নিশ্চয়তা।

আজ (১৪ জানুয়ারী) জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের আসন্ন ১৫ ফেব্রুয়ারী ঢাকা বিভাগীয় কর্মীসম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির এক বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম হক্কানী ওলামায়ে কেরামের নেতৃত্বে গড়ে ওঠা ঐতিহ্যবাহী একটি ইসলামী রাজনৈতিক দল। এই দলের লক্ষ্যই হচ্ছে, সৎ ও দক্ষ নেতৃত্বের মাধ্যমে আল্লাহর জমিনে আল্লাহর বিধান প্রতিষ্ঠা করে ন্যায়, ইনসাফ, সুবিচার ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা। এই লক্ষ্যেই জমিয়ত কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, দ্বীনি কাজে নানা প্রতিবন্ধকতা, সংকট আসতে পারেই। সতর্কতা ও বুদ্ধিমত্তার সাথে উদ্ভুত প্রতিবন্ধকতাকে এড়িয়ে সম্মুখপানে অগ্রসর হওয়া প্রকৃত নেতাদের কাজ। সুতরাং সংগঠনের কাজে দলীয় নেতা কর্মীদেরকে আদর্শিক আনুগত্যে দৃঢ়তা ও ত্যাগী মানসিকতা নিয়ে দলকে এগিয়ে নিতে গভীর মনোযোগী হতে হবে।

জমিয়ত মহাসচিব আল্লামা কাসেমী আসন্ন ঢাকা বিভাগীয় কর্মী সম্মেলনকে সর্বাত্মক সফল করতে দলীয় নেতা-কর্মীদের প্রতি তৃণমূল থেকে ব্যাপক গণসংযোগ ও সাংগঠনিক তৎপরতা শুরুর প্রতি আহবান জানান।

ঢাকা বিভাগীয় কর্মী সম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক দলের সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফীর সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব হফেজ নাজমুল হাসানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রধান অতিথি জমিয়ত মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী। উপস্থিত ছিলেন, দলের সহসভাপতি মাওলানা জহিরুল হক ভূঁইয়া, মাওলানা জুনায়েদ আল-হাবীব, সাংগঠনিক সম্পাদক আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক, যুগ্মমহাসচিব মাওলানা তফাজ্জুল হক আজিজ, মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, অর্থসম্পাদক মুফতী মুনির হোসাইন কাসেমী, প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন, মহানগর সভাপতি মুফতী জাকির হোসাইন প্রমুখ।
বৈঠকে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের ঢাকা বিভাগীয় কর্মী সম্মেলন সফলভাবে আয়োজনের লক্ষ্যে প্রস্তুতি কমিটির কাজের রূপরেখা প্রণয়ন করা হয়। সম্মেলনের স্থান নির্ধারণ, প্রচারণা এবং গণসংযোগসহ প্রস্তুতিমূলক কাজ শুরু করার জন্য পূর্বের গঠিত উপকমিটিসমূহকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

বৈঠকে সম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক দলের সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রব ইউসুফী আসন্ন বিভাগীয় সম্মেলন সর্বাত্মক সফল করতে সর্বোচ্চ সাধ্যমতো কাজ করার জন্য ঢাকা বিভাগীয় নেতাকর্মীদের প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।