এখনও রোহিঙ্গাদের ওপর চলছে ভয়াবহ নির্যাতন : জানালেন সদ্য-আগত ১০০ শরণার্থী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি আলহাজ্ব মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেছেন, রোহিঙ্গাদের নিরাপদ বাসস্থানের ব্যবস্থা এবং তাদের বাড়ি ফিরে পাওয়ার নিশ্চিয়তা ও জাতিসংঘের শান্তিবাহিনীর তত্ত্বাবধাে তাদেও নিরাপত্তা বিধান না করে তড়িঘড়ি করে মিয়ানমারে পাঠানোর উদ্যোগে মৃত্যুরমুখে ঠেলে দেয়া হবে।

তিনি বলেন, প্রতাবাসন রোহিঙ্গাদের ইচ্ছার ভিত্তিতে হতে হবে, জোর করে নয়। এই প্রত্যাবাসন নিরাপদ ও মর্যাদাপূর্ণ হতে হবে এবং রোহিঙ্গারা যেন তাদের মূল বাসস্থান ফিরে পেতে পারে তা নিশ্চিত না করে কোনক্রমেই তাদের প্রত্যাবাসন করা যাবে না।

তিনি বলেন, নির্ধারিত সময়সীমা রক্ষা করার চেয়ে রোহিঙ্গাদের স্বেচ্ছা ও নিরাপদে বাড়ি ফেরা নিশ্চিত করা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। কেউ যদি মিয়ানমারে ফেরতকে নিরাপদ মনে না করে তাদেরকে জোর করে ফেরত পাঠানো হবে মৃত্যুরমুখে ঠেলে দেয়া।

আজ বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যৌথ সভায় সভাপতির বক্তব্যে একথা বলেন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুর রহমান ও আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন, সেক্রেটারী মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, জয়েন্ট সেক্রেটারী আলহাজ্ব আব্দুল আউয়াল, ডা. শহিদুল ইসলাম, মাওলানা এইচ এম সাইফুল ইসলাম, মাওলানা নজরুল ইসলাম, আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, মাওলানা ইউনুছ তালুকদার, নজরুল ইসলাম খোকন, আলহাজ্ব ইসমাইল হোসেন, আবুল হাসান, আবু আশিক প্রমুখ।

তিনি বলেন, রাখাইনে এখনও রোহিঙ্গা মুসলমানদের হত্যার সংবাদ মিডিয়ার আসছে। রোহিঙ্গাদের মনে এখনও হত্যা-ধর্ষণের প্রতিচ্ছবি ভেসে উঠছে। এ জন্য উদ্বেগ ও শঙ্কা তাদেরকে তাড়া করে বেড়াচ্ছে। কাজেই সেখানে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত না করে তাদেরকে ফেরত পাঠানোর উদ্যোগ শুভ লক্ষণ নয়। দেশটির সেনাবাহিনীর নীতির পরিবর্তন না হলে রোহিঙ্গাদের সেখানে ফেরত পাঠানো নিরাপদ হবে না বলে মনে করছে মানবাধিকার সংগঠনগুলো। এমতাবস্থায় মুসলিমবিশ্বকে এব্যাপাওে আরো জোরালো ভুমিকা পালন করতে হবে।

পার্সটুডে