মহিলার পেটে মিলল ২০০ পাথর! কারণ জানলে আপনিও চমকে উঠবেন

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট 


আপনি কি মাঝেমধ্যেই সকালের নাস্তা করেন না? সময়ের চাপে দ্রুত কর্মক্ষেত্রে পৌঁছতে খালি পেটেই কাটিয়ে দেন সকালটা? যদি উত্তর ‘হ্যাঁ’ হয়, তা হলে চিনের এই মহিলার দশা হতে পারে আপনারও!

সকালের নাস্তা করতেন না চিনের বাসিন্দা এই মহিলাও। নিয়মিত সকালের খাওয়া বন্ধ ছিল তাঁর। পরিণতি, পেটের মধ্যে মিলল দু’শোটির বেশি পাথর! মহিলার পেট কাটার পর চমকে উঠেছেন শল্য চিকিৎসকরা।

গলস্টোনগুলির কোনও কোনওটির সাইজ ডিমের মতো! পঁয়তাল্লিশ বছর বয়স্ক ওই মহিলা অপারেশনকে প্রচণ্ড ভয় করেন। সেই কারণে গত দশ বছরেরও বেশি সময় ধরে পেটে ব্যথা হওয়া সত্ত্বেও তিনি চিকিৎসকের কাছে যাননি। যদি তাঁর পেটে অপারেশন করতে হয়!

কিন্তু সম্প্রতি পেটের যন্ত্রণা সহ্যের সীমানা ছাড়িয়ে গেলে বাধ্যত গুয়ানজি হাসপাতালে যান তিনি। প্রাথমিক পরীক্ষাতেই ধরা পড়ে পেটের মধ্যে জমে রয়েছে অসংখ্য পাথর।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, দিনের পর দিন ধরে সকালের নাস্তা না করার ফলে তাঁর পেটের মধ্যে জন্ম নিয়েছে একের পর এক পাথর। তাঁরা দ্রুত অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেন। প্রায় সাড়ে ছ’ঘণ্টা সময় লাগে অপারেশনটি করতে।

অপারেশন টেবিলে চোখ কপালে ওঠে তাঁদের। দেখা যায়, দু’শোটিরও বেশি পাথর জমেছে তাঁর পেটে। চিকিৎসকরা জানান, ব্রেকফাস্ট না করলে গলব্লাডার সংকুচিত ও প্রসারিত হওয়া বন্ধ করে দেয়। তাতেই তৈরি হতে থাকে পাথর। যত সময় যায়, পরিস্থিতি ততই জটিল হতে থাকে। পাথরগুলির সংখ্যা বাড়ে। বাড়তে থাকে তাদের আকারও।

এর পরের বার সকালের নাস্তা এড়িয়ে যাওয়ার সময় আপনার নিশ্চয়ই একবার মনে পড়বে চিনের এই মহিলার পরিণতি।

এবেলা