“যোগব্যয়াম বাধ্যতামূলক হলে নামাজও শেখাতে হবে”

90755_15অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের সদস্য মাওলানা সাজ্জাদ নোমানি বিজেপি পরিচালিত ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে নাগরিকদের ওপর হিন্দুত্ব চাপিয়ে দেয়ার অভিযোগ তুলেছেন। মাওলানা নোমানি এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, সূর্য নমস্কার এবং যোগব্যায়াম করতে বাধ্য করা, বন্দেমাতরম সঙ্গীত গাওয়া বাধ্যতামূলক করা- এসব আসলে হিন্দু সংস্কৃতি চাপিয়ে দেয়া।

তিনি বলেন, ‘আগামী ২৪-২৫ ফেব্রুয়ারি মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের পক্ষ থেকে গ্রেটার মুম্বাইয়ের নিকটবর্তী মুম্ব্রা শহরে ‘সেভ ফেইথ, সেভ কন্সটিট্যুশন’ বা ‘বিশ্বাস বাঁচাও, সংবিধান বাঁচাও’ নামে দুই দিনের সম্মেলন করা হবে। দেশজুড়ে এ নিয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোর কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে। যদি বিজেপি সরকার ছাত্র এবং সরকারি কর্মীদের হিন্দু সংস্কৃতির সঙ্গে যুক্ত যোগব্যায়াম এবং সূর্য নমস্কার করতে বাধ্য করে তাহলে সরকারকে তাদের ‘নামাজ’ পড়ানোও শেখাতে হবে। আমরা যোগের বিরুদ্ধে নই, কিন্তু যোগব্যায়াম অনুশীলন হিন্দু ঐতিহ্যের অংশ। যদি সরকার যোগ ব্যায়াম করা শেখায় তাহলে নামাজ পড়ানোও শেখাতে হবে।’

মাওলানা সাজ্জাদ নোমানি কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকারের অনেক নীতিই সংবিধানবিরোধী। বিজেপি সরকার সংবিধান নিয়ে খেলা করছে। এজন্য দেশের গণতান্ত্রিক-ধর্মনিরপেক্ষ বুনিয়াদ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। একটি পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে বিভিন্ন জাতি এবং ধর্মের উপরে হিন্দুত্ব চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছেন মাওলানা সাজ্জাদ নোমানি।