‘ধর্মীয় ও নৈতিক শিক্ষা ছাড়া সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়’

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


ঐতিহ্যবাহী জামেয়া মাদানিয়া কাজিরবাজার মাদরাসার ৪৩তম বার্ষিক ইসলামী মহাসম্মেলনে বক্তারা বলেছেন, ধর্মীয় ও নৈতিক শিক্ষা ছাড়া সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়। সমাজের সর্বস্তরে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে হলে সার্বজনীন শিক্ষা ব্যবস্থায় ধর্মীয় শিক্ষা বাধ্যতামূলক করতে হবে।

বক্তারা বলেন, বিশ্বব্যাপী ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে ইহুদি খ্রিস্টান ও সাম্রাজ্যবাদী গোষ্ঠীর মোকাবেলায় মুসলিম উম্মাহর ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। দেশী-বিদেশী ইসলাম বিদ্বেষী গোষ্ঠী মুসলমানদের ঈমান আকীদা, তাহজীব তামাদ্দুন ধ্বংস করতে চায়। শিরক বিদআত ও কুফরি কালচার আমাদের সমাজকে কলুষিত করে ফেলেছে। তাই পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের কল্যাণে তাওহিদ ও রিসালতের অনুপম আদর্শ পরিপূর্ণ অনুসরণ করতে হবে।

বক্তারা আরো বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে সাথে ফেতনাও দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। ফলে মুসলমানদের মধ্যে হিংসা, বিদ্বেষ ও বিভেদ বাড়ছে। মহানবী সা. এর শান-মান মর্যাদা রক্ষায় এবং নাস্তিক্যবাদী অপশক্তির মোকাবেলায় আমাদের সংগ্রামকে আরো জোরদার করতে হবে।

আজ (১০ ফেব্রুয়ারি) শনিবার দু’দিনব্যাপী বার্ষিক ইসলামী মহাসম্মেলনের দ্বিতীয় দিন মাহফিলে বক্তাগণ এসব কথাগুলো বলেন।

দু’দিনব্যাপী সম্মেলনে অন্যান্য কর্মসূচীর মধ্যে ছিল শিশু শিক্ষা প্রদর্শনী, বিগত তিন বৎসরের তাকমীল ফিল হাদীস ও হিফজ সমাপনী ছাত্রদের মধ্যে পাগড়ী বিতরণ (সমাবর্তন), শপথ গ্রহণ, হামদ, না’ত পরিবেশন, আলেম উলামার বয়ান।

জামেয়ার প্রিন্সিপাল হযরত মাওলানা হাবীবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিভিন্ন অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন আলহাজ্ব মাওলানা আব্দুস শহীদ গোলমাকাপনী, মাওলানা খুরশেদ আলম কাসেমী, মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা জুবায়ের আহমদ আনসারী, সম্মেলন উপস্থাপনা করেন মাওলানা শাহ মমশাদ, মাওলানা সামীউর রহমান মুছা, মাওলানা মুশফিকুর রহমান মামুন, মাওলানা ফাহাদ আমান।