‘বাবরী মসজিদের জমি কাউকে দেয়া যাবে না’

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


বাবরী মসজিদ-রাম মন্দির বিতর্ক ইস্যুতে অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল’বোর্ডের নির্বাহী কমিটির সদস্য মাওলানা সালমান হুসেইন নাদভির মীমাংসা সূত্র প্রত্যাখ্যান করেছে সংগঠনটি।

সম্প্রতি বেঙ্গালুরুতে আর্ট অফ লিভিংয়ের প্রতিষ্ঠাতা শ্রী শ্রী রবিশঙ্করের সঙ্গে বৈঠক করে ল’ বোর্ডের মাওলানা সালমান হুসেইন নাদভি বলেন, “অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে রাম মন্দির হলে তাদের আপত্তি নেই। এর পরিবর্তে মসজিদ তৈরির জন্য মুসলিমদের এক খণ্ড জমি দেয়া হোক।”

গণমাধ্যমে তার এ ধরণের মন্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই হায়দ্রাবাদে মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের বৈঠকে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

হায়দ্রাবাদে শুক্রবার থেকে তিন দিনের জন্য মুসলিম পার্সোনাল ল’বোর্ডের বৈঠক শুরু হয়েছে।

পার্সোনাল ল’ বোর্ডের বক্তব্য, শরীয়া অনুযায়ী মসজিদের জমি কাউকে দেয়া যায় না, উপহার দেয়ারও নিয়ম নেই। একবার কোনো জমিতে মসজিদ নির্মিত হলে তা আল্লাহর হয়ে যায়। ১৯৯০ সালের ডিসেম্বর ও ১৯৯৩-এর জানুয়ারিতেও ল’ বোর্ডের অবস্থান একইরকম ছিল। তারা আগেকার ওই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসছেন না বলে জানিয়েছেন।

ল’ বোর্ডের এক মুখপাত্র বলেন, কোনো মসজিদকে গায়রুল্লাহ’র এবাদতের জন্য দেয়া হারাম। শরীয়ায় এ ধরণের কোনো সুযোগ নেই।

এদিকে, মুসলিম পার্সোনাল ল’বোর্ডের নির্বাহী কমিটির সদস্য মাওলানা সালমান হুসেইন নাদভির বিতর্কিত মন্তব্যকে কেন্দ্র করে তার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাকে বোর্ড থেকে বহিষ্কার করা হতে পারে বলেও শোনা যাচ্ছে।

ল’ বোর্ডের সভাপতি মাওলানা রাবে হাসান নাদভি, মহাসচিব মাওলানা ওয়ালি রহমানি, নির্বাহী কমিটির সদস্য মাওলানা আরশাদ মাদানী এবং মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ রহমানিকে নিয়ে এক কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি শ্রী শ্রী রবিশঙ্কর ও মাওলানা সালমান হুসেইন নাদভির মধ্যে কী কথা হয়েছে তা খতিয়ে দেখবে।

এ প্রসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গ থেকে হায়দ্রাবাদে মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের সভায় যোগ দেয়া বিশিষ্ট সিনিয়র সদস্য ডা. রইসউদ্দিন আজ (শনিবার) রেডিও তেহরানকে বলেন, ‘হায়দ্রাবাদে মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের বৈঠক চলছে, বোর্ড এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে। কিন্তু বোর্ডের এ পর্যন্ত যা অবস্থান তা হল, মসজিদ যেখানেই নির্মাণ করা হোক কিয়ামত পর্যন্ত তা স্থায়ী ইমারত। তা অন্য জায়গায় সরিয়ে নেয়া যাবে না।’

‘উনি (মাওলানা সালমান হুসেইন নাদভি) ওনার ব্যক্তিগত মত প্রকাশ করেছেন। তার ওই মতের সঙ্গে ল’ বোর্ড একমত নয়। এ ব্যাপারে পার্সোনাল ল’ বোর্ডই শেষ কথা বলবে’ বলেও মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের সিনিয়র সদস্য ডা. রইসউদ্দিন জানান।


পার্সটুডে