মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হলো মাহাথির মোহাম্মদের ছেলেকে

মুখরিজ মাহাথিরসৌদি আরবের কাছ থেকে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের বিপুল অর্থ ‘অনুদান’ নেয়ার জের ধরে রাজ্য মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের ছেলেকে।

৫১ বছর বয়সী মুখরিজ মাহাথির বুধবার কেদাহ প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন। তবে তাকে পদত্যাগ করার জন্য ক্ষমতাসীন ইউনাইটেড মালয়িজ ন্যাশনাল অর্গানইজেশনের পক্ষ থেকে চাপ দেয়া হয়েছে বলে স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে।

সাংবাদিকদের সামনে এক লিখিত বক্তব্যে মুখরিজ বলেন, ‘আমাকে সরিয়ে দেয়ার প্রকৃত কারণ প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আমার সমালোচনা। তিনি নিজেই একথা স্বীকার করেছেন।’

‘সমালোচনার বিষয় ছিল ওয়ানএমডিবি কেলেঙ্কারী এবং ২৬০ কোটি রিঙ্গিত সৌদি অনুদান এবং পণ্য ও সেবার দাম বৃদ্ধিতে জনগণের জীবনমানের ওপর প্রভাব,’ বলেন তিনি।

মাহাথির মোহাম্মদের ছেলে মুখরিজকে মালয়েশিয়ার ভবিষ্যত প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অনেকে কল্পনা করতেন। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে পদত্যাগ করায় তার সেই সম্ভাবনায় আঘাত পড়ল। নাজিব রাজাক সৌদি আরবের কাছ থেকে উপহার হিসেবে প্রায় ৭০ কোটি ডলার নিয়েছেন বলে খবর বের হওয়ার পর মাহাথির মোহাম্মাদ বর্তমান সরকারকে পদত্যাগের জন্য আহ্বান জানিয়ে আসছেন।

সৌদি আরবের কাছ থেকে অর্থ নেয়ার বিষয়ে সমালোচনা করায় নাজিব রাজাক তার মন্ত্রিসভায় রদবদল করেছেন এবং বেশ কয়েকজনকে সরিয়ে দিয়েছেন।

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিবের শত শত কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগের বিরুদ্ধে সোচ্চার দেশটির জনপ্রিয় সবাকে প্রধানমন্ত্রী মাহাথির। এ নিয়ে বর্তমান আর সাবেক প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে বিরোধ চলছে। তবে তারা উভয়ই একই দলের নেতা।

সূত্র: বারনামা, ব্লমবার্গ