ভাষা শহীদদের স্মরণ করতে হবে ইসলামী রীতিনীতি অনুযায়ী: চরমোনাই পীর

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


ফাইল ছবি

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম (চরমোনাই পীর ) আজ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ভাষা শহীদদের মুসলিম রীতি-নীতি বাদ দিয়ে ভিনদেশী সংস্কৃতির মাধ্যমে স্মরণ করে তাদের আত্মাকে কষ্ট দেয়া হচ্ছে। তাদের স্মরণ করতে হবে ইসলামী রীতি অনুযায়ী। অর্থ্যাৎ দোয়া মুনাজাতের মাধ্যমে।

তিনি বলেন, ভাষা আন্দোলনের অতীত ইতিহাসের গৌরবের কথা বর্ণনা করে আত্মতৃপ্তি পাবার কোনো সুযোগ নেই। বরং ভাষা শহীদরা অন্যায়ের বিরুদ্ধে যেভাবে প্রতিবাদ করে উর্দূ ভাষার পরিবর্তে বাংলা ভাষা রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রতিষ্ঠা করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন, সেভাবে বর্তমানও অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ করার সেই আদর্শ গ্রহণের মধ্যেই ভাষা দিবস পালনের প্রকৃত স্বার্থকতা। আজ প্রয়োজন আন্দোলনের সেই চেতনার মাধ্যমে অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করা। ভাষা আন্দোলন জনগণের অধিকার সমুন্নত রাখার জন্যে আন্দোলনের অনুপ্রেরণা এবং সেই সাথে ইনসাফ প্রতিষ্ঠার দৃঢ় প্রত্যয়, যা যুগে যুগে মানুষকে প্রেরণা যুগিয়ে যাবে। অন্যায়-অসত্যের বিরুদ্ধে সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার অনুশীলনের চেতনায় উজ্জীবিত হওয়ার মধ্যেই ভাষা দিবস পালনের স্বার্থকতা।

চরমোনাই পীর বলেন, ভাষার জন্য যারা জীবন দিলো সেই সালাম, বরকত, জব্বার, রফিকদের রক্তের সাথে বেঈমানী করা হচ্ছে। এখনও বাংলা প্রচলন সর্বত্র হয়নি। এখনও অফিস আদালতে ইংরেজীকে প্রাধান্য দেয়া হয় এবং এখনও সুপ্রিমকোর্টে রায় লেখা হয় ইংরেজীতে। এগুলো বন্ধ করে বাংলাকে সর্বত্র গুরুত্ব দিতে হবে। এবং যারা ভাষার জন্য জীবন দিয়েছে সেই ভাষা শহীদ পরিবারকে যথাযথ সম্মান দিতে হবে।