‘চাঁদা না পেয়ে চুলায় পুলিশের লাঠির আঘাত’: চা বিক্রেতা দগ্ধ

বাংলাদেশ পুলিশ (2)রাজধানীর শাহআলী থানার গুদারাঘাটে একটি চায়ের দোকানে চুলায় পুলিশের লাঠির আঘাতে চুলা বিস্ফোরিত হয়ে বিক্রেতার শরীরে আগুন ধরে দগ্ধ হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

চাঁদা না দেওয়ায় পুলিশ ওই দোকানির ওপর চড়াও হয় বলে তার এক স্বজন অভিযোগ করেছেন। তবে অভিযোগ অস্বীকার করে থানা থেকে বলা হয়েছে, পুলিশ নয়, সোর্স দেখে পালাতে গিয়ে তিনি দগ্ধ হন।

তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

চা বিক্রেটার নাম বাবুল মিয়া (৫৫)। তার বাবার নাম সাদেক খান। ভোলা সদর উপজেলার ব্যাংকের হাটে তাদের বাড়ি। রাজধানীর মিরপুর গুদারা ঘাট এলাকায় তিনি থাকেন।

জানা গেছে, বুধবার রাত ১০ টার দিকে দেলোয়ার হোসেন নামের ওই ব্যক্তি গুদারাঘাট এলাকায় বাবুলের চায়ের দোকানে যান। এরপর তার কাছে চাঁদা দাবি করে। এসময় বাবুল কিছুক্ষণ পরে আসতে বলেন। এতে সে উত্তেজিত হয়ে তার কম্প্রেসার চুলায় লাঠি দিয়ে আঘাত করে। ফলে চুলাটি বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। এতে বাবুল মিয়ার শরীরের ৯০ শতাংশ দগ্ধ হয়। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকগণ জানিয়েছেন।

শাহআলী থানার ডিউটি অফিসার এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দোলোয়ার নামে একজন এক ঘটনা ঘটিয়েছে শুনেছি। ঘটনাস্থলে লোক পাঠানো হয়েছে।