নামাজই আমাকে সঠিক পথে রাখে : উসমান খাজা

উসমান খাজাঅস্ট্রেলিয়া দলে একজন ধর্মপ্রাণ মুসলিম ক্রিকেটার! কথাটা নতুন। দক্ষিণ আফ্রিকা দলে লম্বা দাড়ির হাশিম আমলার কথা সবাই জানেন।হাশিম আমলা একজন ধার্মিক মুসলিম। ধর্ম সবার আগে।

কিন্তু উসমান খাজা নিজের ধার্মিক জীবনকে গোপনই রেখেছেন এতদিন। এই প্রথম বিষয়টি নিয়ে কথা বললেন তিনি।

জানালেন, নামাজেই শান্তি পান তিনি। তাকে সঠিক পথে রাখে সঠিক সময় নামাজ আদায়। ইসলাম তার কাছে সবার আগে। ওয়েস্ট ইন্ডিজে শুক্রবার শুরু ত্রিদেশীয় সিরিজের সময়ও রোজা রাখবেন।

ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে কিছু বাজে অভ্যাস পাকিস্তান বংশোদ্ভুত খাজার শরীর নষ্ট করছিল। এরপর আমলে মন দেন তিনি। তারপর আর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি। ২৯ বছর বয়সে এখন ক্যারিয়ারের চূড়ায়। তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়ান দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। সেঞ্চুরির পর সেঞ্চুরি করে যাচ্ছেন গেলো কিছুদিন ধরে। যদিও ২০১১ সালে প্রথম সুযোগ পাওয়ার পর জায়গাটা হারিয়েছেন। ২০১৪ তে আলোচনায় ফেরার পর দারুণ ধারবাহিক এই ব্যাটসম্যান।

“খেলাটা কখনো স্ট্রেস আনে, আবেগতাড়িত করে, কঠিনও কখনো কখনো…সবাইকে তাই মনযোগ ধরে রাখতে পথ খুঁজতে হয়।” ক্যারিবিয়ান থেকে খাজা বলছিলেন, “সবাই নিজের মতো করে পথ বের করে নেয়। আমার রাস্তাটা আমার। আমি নামাজ পড়ি। ওটাই আমাকে পথে রাখে। আমার জীবনে এক নম্বর ও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ধর্ম। ওটা সবার আগে। অন্য সবকিছুতে এটাই সহায়তা করে। ক্রিকেটেও।”

সামনের সপ্তাহ থেকে পবিত্র রমজান মাস শুরু। টানা একটি মাস রোজার। ওয়েস্ট ইন্ডিজের এই সফরে ম্যাচের দিন রোজা রাখতে পারবেন না খাজা। কারণ, যথাযথ খাদ্য ছাড়া মাঠে সেরাটা দেওয়া সম্ভব না। এই বিষয়ে সিদ্ধান্তে আসতে আমলার সাথেও কথা বলেছেন খাজা।

“যে দিনগুলোতে খেলা থাকবে না সেদিনগুলোতে রোজা রাখতে চাইবো। সফরের দিনগুলোতেও রাখবো। তবে ম্যাচের দিন না।” খাজা বলেছেন, “এ নিয়ে আমি হাশিমের সাথে কথা বলেছি। সে বললো, ‘নাহ। কোনো সুযোগ নেই’। ম্যাচের দিনগুলো একটু বেশি কঠিন। তবে অন্য দিনগুলোতে অবশ্যই রোজা রাখবো।”