আইএস’র নামে ভারতে যুবকদের আটক করা হচ্ছে: আসাদউদ্দিন ওয়াইসি

আসাদউদ্দিন ওয়াইসিঅল ইন্ডিয়া মজলিস-ই ইত্তেহাদুল মুসলেমিন (মিম) প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি এমপি কেন্দ্রীয় সরকার ও উত্তর প্রদেশ রাজ্য সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন। আজ (বৃহস্পতিবার) উত্তর প্রদেশের ফৈজাবাদে এক নির্বাচনি জনসভায় তিনি নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন ‘সরকারকে দলিত ও মুসলিম বিরোধী’ বলে অভিহিত করেন।

আসাদউদ্দিন ওয়াইসি অভিযোগ করে বলেন, সরকার অন্য ইস্যু থেকে দৃষ্টি ঘোরাতে আইএসআইএল-এর নামে দেশজুড়ে যুবকদের আটক করছে। তিনি দলিত স্কলার ছাত্র রোহিত ভেমুলার মৃত্যুতে লখনৌতে প্রধানমন্ত্রীর আবেগপ্রবণ হয়ে পড়ার ঘটনাকে কটাক্ষ করে একে ফিল্মি দৃশ্য বলে অভিহিত করেন।

তিনি বলেন, হায়দ্রাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের দলিত ছাত্র রোহিত ভেমুলার মৃত্যুতে রাজনৈতিক নাটক করা হচ্ছে। এছাড়া, আম্বেদকরকে নিয়ে রাজনৈতিক দলের সম্মান জানানোকে তিনি ভুয়ো বলে আখ্যা দেন।

ওয়াইসি বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উচ্চবর্ণের লোকেরা দলিতদের দমিয়ে রাখার চেষ্টা করাতেই রোহিত ভেমুলা আত্মহত্যা করেছে। প্রধানমন্ত্রী যখন লখনৌতে এসে ভাষণ দিতে গিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে গিয়েছিলেন, এক মিনিটের জন্য চুপ হয়ে ছিলেন, আমার তো মনে হচ্ছিল যেন ‘মুঘল-ই আজম’ ছায়াছবির কোনো দৃশ্য চলছে!’

উত্তর প্রদেশে উপ-নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ওয়াইসি তার প্রথম জনসভাতেই কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের তুলোধোনা করেন। রাজ্যের অখিলেশ যাদব সরকারকে এক হাত নিয়ে তিনি বলেন, ‘উত্তর প্রদেশে সপা সরকার আমাকে এ রাজ্যে আসতে বাধা দেয়ার চেষ্টা করেছে। ওরা অনেক চেষ্টা করেছে যাতে আমি গরীব, মুসলিম এবং দলিত ইস্যু না তুলতে পারি। যদি লোহিয়া বেঁচে থাকতেন তাহলে আমাকে হাত ধরে আজ এখানে নিয়ে আসতেন।’

তিনি আজ দাদরিতে আখলাক হত্যা প্রসঙ্গ তুলে ধরে বলেন, মুসলিম হওয়ার জন্যই তাকে হত্যা করা হয়েছিল।

আসাদউদ্দিন ওয়াইসি এমপি রাজ্য সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘উত্তর প্রদেশে আসা থেকে তাকে কেউ বিরত করতে পারবে না। আমি উত্তর প্রদেশের সমস্ত জায়গায় যাব এবং পাবলিক পরিবহণে যাতায়াত করব।’