বিদায় হজ্বের ভাষণ কার্যকর করা হলে বিশ্বে শান্তির দ্বার উন্মোচিত হবে : আল্লামা বাবুনগরী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | জুনাইদ আহমদ


আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী

বিদায় হজ্বের ঐতিহাসিক ভাষণ কার্যকর করা হলে বিশ্বে শান্তির দ্বার উন্মোচিত হবে বলে মন্তব্য করেছেন দেশের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক ধর্মীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক শাইখুল হাদীস আল্লামা হাফেজ জুনায়েদ বাবুনগরী। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বিশ্ব শান্তির অগ্রদূত ছিলেন৷বিশ্ববাসীর জন্য তিনি ছিলেন রহমাতুল লিল আলামীন বা রহমত স্বরূপ। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের বিদায় হজ্বের ঐতিহাসিক ভাষণ কার্যকর করলে বিশ্বে শান্তির দ্বার উন্মোচিত হবে।

আজ সোমবার (২ এপ্রিল) বাদ মাগরিব হাটহাজারী মাদরাসার দারুল মিশকাতে হাদীস গ্রন্থ মিশকাত শরীফের কিতাবুল হজ্ব অধ্যায়ে রাসুলুল্লাহর বিদায় হজ্বের ঐতিহাসিক ভাষণ সম্বলিত হাদীসের উপর আলোচনা করতে গিয়ে আল্লামা বাবুনগরী এসব কথা বলেন৷

গোটা পৃথিবী আজ অশান্তির দাবালনে দাউ দাউ করে জ্বলছে উল্লেখ করে আল্লামা বাবুনগরী বলেন, ব্যক্তি জীবন থেকে শুরু করে পারিবারিক, সামাজিক, রাষ্ট্রীয় ও আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের বিদায় হজ্বের ভাষণ বাস্তবায়ন করতে পারলে আজকের অশান্তির পৃথিবীতে চিরশান্তির দ্বার উন্মোচিত হবে।

তিনি বলেন,বিদায় হজ্বের ভাষণে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বিশেষভাবে তিনটি বিষয়ে উপস্থিত সাহাবায়ে কেরাম সহ বিশ্ববাসীকে গুরুত্বারোপ করেছেন৷
১. অন্যায়ভাবে কাউকে হত্যা না করা। ২. কারো ধন সম্পদ বিনষ্ট না করা। ৩. কারো ইজ্জত আব্রুর নষ্ট না করা।
মানুষের জান মাল, ইজ্জত আব্রু ও ধন সম্পদের হেফাজত থাকলে বিশ্বে কখনো অশান্তির পরিবেশ সৃষ্টি হবে না৷

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, আজ পুরো বিশ্বে অশান্তির মূল কারণ এ তিনটি৷ জানের যথাযথ হেফাজত না হওয়া। অন্যায়ভাবে বিনা দোষে আজ মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে। মানুষের সম্পদের লুন্ঠন করা হচ্ছে। ইজ্জত আব্রু বিনষ্ট করা হচ্ছে।  এজন্যই আজ গোটা পৃথিবী অশান্ত ৷

তিনি আরো বলেন, শান্তি চুক্তি আর শান্তি চাই শান্তি চাই বলে মিছিল মিটিং করলে বিশ্বে শান্তি আসবে না। অশান্তকর পৃথিবী শান্ত হবে না। প্রকৃতপক্ষে শান্তি চাইলে কুরআনের বিধান চালু করতে হবে, রাসুলুল্লাহর বিদায় হজ্বের ভাষণ কার্যকর করতে হবে ৷ তাহলে বিশ্বে শান্তির দ্বার উন্মোচিত হবে।