মৃত্যুর পর আপনার ফেসবুক, টুইটার অ্যাকাউন্টের কি হবে?

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | তথ্য-প্রযুক্তি ডেস্ক 


মৃত্যুই হয়তো পৃথিবীর সবচেয়ে সত্য বিষয়। প্রাণী বলতেই তার মৃত্যু অবশ্যম্ভাবী। একবারও কী ভেবেছেন, মানুষ মারা গেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার একাউন্টটির কি হয়?

মানুষের মৃত্যুর পর একটা সময় তার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি নিষ্ক্রিয় হয়ে যাবে। তবে চেনা-পরিচিতরা ফেসবুক প্রোফাইলটি দেখতে পান।

ফেসবুকে ‘লেগাসি কন্টাক্ট’ অপশনের মাধ্যমে পরিচিত কাউকে ফেসবুক অ্যাকাউন্টে যুক্ত করতে পারবেন আপনি। এরফলে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের সমস্ত নোটিফিকেশন তাঁর কাছে যাবে। এটা করতে, প্রথমে সেটিংসে গিয়ে ‘ম্যানেজ অ্যাকাউন্ট’-এ যেতে হবে। সেখানে আপনার যে কোনও একজন বন্ধু কিংবা পরিচিত কারও নাম লিখে যুক্ত করে নিতে পারবেন।

কোনও কারণে আপনি যদি ফেসবুক করা বন্ধ করে দেন বা বন্ধ হয়ে যায়। সেক্ষেত্রে ম্যানেজ অ্যাকাউন্টে যার নাম লিখেছেন, তিনি চাইলে আপনার অ্যাকাউন্টটি সচল রাখতে পারবেন। তবে তিনি চ্যাট করতে পারবেন না। তিনি চাইলে অ্যাকাউন্টটি ডিলিটও করে দিতে পারবেন।

টুইটারের ক্ষেত্রে নিয়মটা একটু আলাদা। কোনও ব্যক্তি মারা গেলে তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করা যায়। এজন্য মৃত ব্যক্তির কোনও বন্ধু কিংবা পরিচিতজনের প্রথমে টুইটার কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানাতে হয়। অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করার জন্য ‘প্রাইভেসি ফর্ম’ বলে একটি অপশনের মাধ্যমে আবেদন জানাতে হয়। এরপর ৩০ দিনের মধ্যেই ওই অ্যাকাউন্টটি নিষ্ক্রিয় করে দেয় টুইটার কর্তৃপক্ষ।

কারও গুগল অ্যাকাউন্ট এক মাসের অধিক সময় নিষ্ক্রিয় থাকলে, প্রথমে গুগলের তরফ থেকে অ্যাকাউন্টের মালিককে সতর্কতামূলক মেইল করা হয়। মেইলের কোনও উত্তর না আসলে, গুগল অ্যাকাউন্টে সেভ করা বেশ কিছু নম্বরে ‘আপনার অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করা হবে’ বলে মেসেজ ও মেইল পাঠানো হয়।

তার পরেও যদি কোন উত্তরে না আসে, ৬ থেকে ১২ মাসের মধ্যে গুগল অ্যাকাউন্টটি নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হয়।