শুধু পুরুষ নয়, কাতারের নারীদেরকেও নিতে হবে সামরিক প্রশিক্ষণ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আলে সানি নতুন একটি আইনে সই করেছেন যাতে বলা হয়েছে দেশে নারীদেরকেও স্বেচ্ছায় এক বছরের জন্য সামরিক প্রশিক্ষণ নিতে হবে।

কাতারের সরকারি বার্তা সংস্থা কিউএনএ জানিয়েছে, শেখ তামিম গতকাল (বৃহস্পতিবার) এ আইনে সই করেন যাতে ১৮ থেকে ৩৫ বছরের নারীদেরকে সামরিক প্রশিক্ষণ নেয়ার বিধান রাখা হয়েছে। এ আইনের আওতায় নারীদের সামরিক প্রশিক্ষণ হবে ‘স্বেচ্ছাসেবামূলক’। কাতারে এই প্রথম নারীরা সরকারি চাকরির বাইরে সামরিক বাহিনীতে ভূমিকা পালনের সুযোগ পাচ্ছেন।

এর আগের আইন অনুসারে, কাতারের যেসব নাগরিক ব্যাচেলর ডিগ্রি অর্জন করেছেন তাদের জন্য তিন মাসের সামরিক প্রশিক্ষণ নেয়ার বিধান ছিল। যারা ব্যাচেলর ডিগ্রি নেন নি তাদের জন্য চার মাসের প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক ছিল। কিন্তু নতুন আইন অনুযায়ী, নাগরিকরা যে পর্যায়ের লেখাপড়া শেষ করুক না কেন তাদের জন্য এক বছরের সামরিক প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

কাতারি নাগরিকদের বয়স ১৮ হলেই দুই মাসের মধ্যে সরকারের কাছে রিপোর্ট করতে হবে অন্যথায় সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড ও ১৩ হাজার ৭০০ ডলার জরিমানা করা হবে।


দেখুন ইনসাফ সংবাদ…