মাওলানা আব্দুস সালাম কুদসীর জানাযায় শোকার্ত মুসল্লিদের ঢল

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আবুল মঞ্জুর


সড়ক দূর্ঘটনায় আহত রামুর বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন মাওলানা আব্দুস সালাম কুদসী শনিবার (৭ এপ্রিল) ভোর ৫টা ২০ মিনিটে চট্টগ্রামের একটি ক্লিনিকে ইন্তেকাল করেছেন-ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

মাওলানা আবদুচ্ছালাম কুদছী রামুর রাজারকুল আসমা ছিদ্দিকা (র.) মাদরাসা ও এতিমখানার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক। তিনি বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি কক্সবাজার জেলা যুগ্ম সম্পাদক ও রামু উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক, রামু বাইপাস কেন্দ্রিয় জামে মসজিদের কোষাধ্যক্ষ, রামু প্রবাসী কল্যাণ সংস্থা মক্কা’র ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক, কক্সবাজার ইসলামী সাহিত্য ও গবেষণা পরিষদের সভাপতি, রামু ইসলামী সম্মেলন পরিষদের যুগ্ন সম্পাদক এবং রামু লেখক ফোরামের উপদেষ্টা।

মৃত্যুকালে মাওলানা আবদুচ্ছালাম কুদছীর বয়স হয়েছিলো ৪৮ বছর। তিনি রামুর রাজারকুল ইউনিয়নের পশ্চিম সিকদারপাড়া গ্রামের মরহুম ঠান্ডা মিয়ার ছেলে। মৃত্যুকালে তিনি ২ স্ত্রী, ২ছেলে, ২মেয়ে রেখে গেছেন। মাওলানা আবদুচ্ছালাম কুদছী ধর্মীয় শিক্ষার প্রসার ছাড়াও দীর্ঘদিন লেখালেখি করতেন। এছাড়াও তিনি রামু বাইপাস স্টেশন কেন্দ্রিয় জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠায় অগ্রনী ভূমিকা পালন করেন। তাঁর মৃত্যুর খবরে সর্বত্র শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টায় রাজারকুল আসমা ছিদ্দিকা (র.) মাদরাসা মাঠে মাওলানা আব্দুস সালাম কুদসীর জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। রামু প্রবীন আলেমেদ্বীন হাফেজ মাওলানা আবদুল হক নামাজে জানাযায় ইমামতি করেন। পরে রাজারকুল পশ্চিম সিকদার পাড়া কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজ কক্সবাজার জেলা সভাপতি হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুরের সঞ্চালনায় নামাজে জানাযার পূর্বে মরহুমের মাগফিরাত কামনা ও স্মৃতিচারণ করে বক্তৃতা করেন, রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহা. শাজাহান আলি, রামু বাইপাস জামে মসজিদের খতিব মাওলানা হাফেজ আবদুল হক, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি জাফর আলম চৌধুরী,বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মাওলানা সারওয়ার কামাল আজিজী, কক্সবাজার জেলা সভাপতি মাওলানা হাফেজ ছালামতুল্লাহ, রাজারকুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মুফিজুর রহমান, রাজারকুল আজিজুল উলুম মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা মোহছেন শরিফ, হেফাজতে ইসলাম কক্সবাজার জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইয়াছিন হাবিব, কক্সবাজার ইসলামী সাহিত্য ও গবেষণা পরিষদ উপদষ্টো এড. হোছাইন আহমদ আনসারী, রামু প্রবাসী কল্যাণ সংস্থা মক্কা রামুর সাধারণ সম্পাদক এস মোহাম্মদ হোসেন, সাবেক সভাপতি নুরুল হক নুরু ও মরহুমের বড় ছেলে আবদুল আজিজ।

জানাযায় বরণ্যে আলেমেদ্বীন, প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ সহ বিপুল সংখ্যক শোকার্ত জনতা শরীক হন।

উল্লেখ্য গত ২৯ মার্চ লিংক রোড থেকে মোটর সাইকেল যোগে রামু ফেরার পথে চট্টগ্রামগামী শ্যামলী চেয়ারকোচ (ঢাকা মেট্রো-ব১৪৮৮৭০) ধাক্কা দিলে মোটর সাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে তিনি গুরুতর আহত হন। কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরবর্তীতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ থেকে চট্টগ্রাম পাচলাইশ অবস্থিত ট্রিটমেন্ট হসপিটাল নামের এক বেসরকারি হাসপাতালে তাকে রেফার করা হয়। গতকাল বিকেলে অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

বরেণ্য এ আলেমেদ্বীনের ইন্তেকালে শোক প্রকাশ করেছেন রামু-কক্সবাজার আসনের এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউএনও, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি, কক্সবাজার ইসলামী সাহিত্য ও গবেষণা পরিষদ, রামু ইসলামী সম্মেলন পরিষদ, রামু প্রবাসী কল্যাণ সংস্থা মক্কা, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র সমাজ, রামু লেখক ফোরামসহ বিশিষ্ট আলেম ওলামাবৃন্দ।