‘আমার সামনে আমার ছাত্রদের ওপর টিয়ারশেল ছুঁড়লেন- এ কী করলেন!’

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ ও পুলিশের টিয়ারশেল-রাবার বুলেট ছোঁড়ার নিয়ে রোববার থেকেই উত্তেজনা ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে। এর মধ্যে সোমবার ভোরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ হলে পুলিশ-আন্দোলনকারীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে সেখানে বহিরাগত কিছু ছাত্রলীগ কর্মী এসে হামলা চালালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের ধাওয়া দেয়। এসময়ের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সাড়া ফেলে। ছবিতে দেখা যায়, একজন শিক্ষক পুলিশের কাছে কৈফিয়ত চাচ্ছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায় তিনি শহীদুল্লাহ হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আইনুল ইসলাম। চোখের সামনে ছাত্রদের ওপর টিয়ারশেল ছোড়া সহ্য করতে পারেননি, তাই বয়স আর সামর্থ ভুলে গিয়েছিলেন পুলিশদের বোঝাতে। চিৎকার করে বলছিলেন, আমার সামনে আমার ছাত্রদের ওপর টিয়ারশেল ছুঁড়লেন- এ কী করলেন!

ছাত্ররা জানায়, রাত সাড়ে ৪টার দিকে পুলিশ ও ছাত্রলীগের হামলার এক পর্যায়ে কার্জন হল এলাকায় গিয়ে অবস্থান নেন তারা। এ সময় শহীদুল্লাহ এবং ফজলুল হক হলের ছাত্ররা অধিকাংশই ছিলেন তাদের রুমে। এক সময় পুলিশ ও ছাত্রলীগের নেতারা কার্জন হলের ভেতরে গিয়ে আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা চালায়। পুলিশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারশেল ছোড়ে। এতে এই দুই হলের শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে বের হয়ে আসে।

শহীদুল্লাহ হলের ছাত্ররা জানান, ভোর ৫টা ২০ মিনিটের দিকে ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহের হোসেন প্রিন্সের নেতৃত্বে এক দল বহিরাগত ছাত্রলীগ তাদের হলে এসে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায়। এসময় পুলিশও তাদের সঙ্গে যোগ দিয়ে হলের ভেতরে টিয়ারশেল ছুড়ে পরিবেশ অস্থিতিশীল করে তোলে। পরে শিক্ষার্থীরা সম্মিলিত হয়ে ধাওয়া দিলে পিছু হটে পুলিশ ও বহিরাগত ছাত্রলীগ কর্মীরা।


উৎস, যমুনা অনলাইন