মশাল পেতে হাইকোর্টে জাসদের আম্বিয়া গ্রুপ

আবারো ভেঙে গেল ইনুর জাসদ (1)মশাল প্রতীক নিয়ে জাসদ (আম্বিয়া-বাদল) পক্ষের নেতাদের করা রিভিউ আবেদন আগামী ৩০দিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আদালতের আদেশ প্রাপ্তির পর থেকে সময় গণনা শুরু হবে।

বুধবার পৌনে ১২টায় এ সংক্রান্ত রিট আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মোহাম্মদউল্লাহর অবকাশকালীন ডিভিশন বেঞ্চ প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে রিভিউ আবেদন নিষ্পত্তির এ নির্দেশ দেন।

জাসদ আম্বিয়া গ্রুপের করা রিট আবেদনের পক্ষে আদালতে শুনানি করেন আইনজীবী শাহদীন মালিক।

পরে আদালত থেকে বেরিয়ে শাহদীন মালিক বলেন, গত ২৮ এপ্রিল নির্বাচন কমিশন শুনানি না করেই হঠাৎ করে এক তরফাভাবে মশাল প্রতীকটি ইনু ও শিরিন আক্তারের নেতৃত্বাধীন জাসদকে দিয়ে দেয়।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন এভাবে সিদ্ধান্ত দিতে পারেন না। শাহদীন মালিক বলেন, আমরা ইসির এ সিদ্ধান্তের পুর্নবিবেচনা চেয়ে আপিল করি। কিন্তু দেড় মাস পার হয়ে গেলেও এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন কোনো সিদ্ধান্ত না দেওয়ায় আমরা উচ্চ আদালতে আসি। শুনানি করে আজ আদালত এ আদেশ দেন।

তিনি বলেন, হাসানুল হক ইনু, শিরিন আক্তার নৌকা প্রতীক নিয়ে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। আর অপর অংশ নাজমুল হক প্রধান অংশ নিয়েছেন মশাল প্রতীক নিয়ে।

এ জন্য নাজমুল হক প্রধানকে (জাসদ) মশাল প্রতীক বরাদ্দ দেয়া উচিত।

গত ১২ মার্চ জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে বিভক্ত হয় জাসদ। এর এক ভাগের নেতৃত্ব দিচ্ছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও অন্য ভাগের নেতৃত্বে আছেন শরীফ নুরুল আম্বিয়া। নিজেদের মূল জাসদ দাবি করে নিবন্ধন ও মশাল প্রতীক চেয়ে নির্বাচন কমিশনে দ্বারস্থ হয় দুই পক্ষই। বিষয়টি নিষ্পত্তিতে ৬ এপ্রিল শুনানি করে কমিশন।