মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বাবা খুন, বখাটের মৃত্যুদণ্ড

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | সোহেল আহম্মেদ, নেত্রকোনা


উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় কিশোরীর বাবাকে হত্যার এক দশক পর একজনকে ফাঁসি ও চারজনকে তিন বছর করে কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন নেত্রকোনা জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

একই সঙ্গে তাদেরকে ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ডও দেওয়া হয়। এ টাকা দিতে ব্যর্থ হলে তাদেরকে আরো তিন মাস করে কারাভোগ করতে হবে বলেও আদালত আদেশ দিয়েছেন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মামলার অন্য দুই আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে নেত্রকোনা জেলা ও দায়রা জজ রাশেদুজ্জামান রাজা আসামিদের উপস্থিতিতে এই রায় দেন।
আসামিরা হলেন- নেত্রকোনা সদর উপজেলার আসদআটি গ্রামের ওয়ারেছ আলীর ছেলে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত মানিক মিয়া ওরফে মানিক । অন্য দণ্ডিতরা হলেন- একই গ্রামের ওয়াহেদ আলী (৬০), মুর্তুজ আলী (৫০), ইয়াদ আলী (৪৫) ও ছোয়াব আলী (২৫)। খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- একই গ্রামের ওয়াজেদ আলী ও ওয়ারেছ আলী।

আদালতের ভারপ্রাপ্ত পাবলিক প্রসিকিউটর সাইফুল আলম প্রদীপ জানান, নেত্রকোনার বড়ওয়ারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্রী আসদআটি গ্রামের বঙ্কিম সূত্রধরের মেয়ে স্কুলে যাওয়া আসার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছিল একই গ্রামের মানিক মিয়া।

২০০৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর রাত ১০টার দিকে বঙ্কিম সূত্রধর মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার বিষয়টি মানিক মিয়ার অভিভাবকদের জানান। এ ঘটনায় মানিকসহ তার লোকজন ওই রাতেই বঙ্কিম সূত্রধরকে পিটিয়ে হত্যা করে। পরদিন নিহতের ভগ্নিপতি আসদাটি গ্রামের ক্ষিতিশ চন্দ্র সূত্রধরের ছেলে কানাইলাল সূত্রধর বাদী হয়ে সাতজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

পুলিশ তদন্ত শেষে ২০০৮ সালের ২৭ মার্চ সাতজনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়।