ছাত্রলীগ নেত্রী এশাকে ঢাবি থেকে বহিষ্কার সংবিধানপরিপন্থী; বলছে আওয়ামীলীগ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


“ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুফিয়া কামাল হলের ছাত্রলীগের সভানেত্রী ইফফাত জাহান এশাকে ঢাকা বিশ্বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বহিষ্কারাদেশ দেশের মৌলিক অধিকার ও সংবিধানের পরিপন্থী” বলছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ। একইসাথে তাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করাও ঠিক হয়নি বলে মনে করে দলটি।

আজ শুক্রবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে হাছান মাহমুদ এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, “সুফিয়া কামাল হলের ছাত্রলীগের সভানেত্রীকে যে প্রক্রিয়ায় ছাত্রলীগ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে, সেটি সঠিক ছিল না। ছাত্রলীগ তাঁর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে আমি মনে করি সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।”

তদন্ত ছাড়া ইফফাতকে বহিষ্কার করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সমালোচনা করেন হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, “একজন ছাত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ আসার পর কোনো প্রকার তদন্ত ছাড়া মৌখিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করে দেওয়ার মতো ঘোষণা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো প্রতিষ্ঠান দিতে পারে—এটি আমার কল্পনারও বাইরে। এটি দেশের মৌলিক অধিকারপরিপন্থী, সংবিধানপরিপন্থী, যেটি সমীচীন হয়নি। যে কেউ অপরাধ করলে সেটির তদন্ত হতে হবে। তদন্তের পর শাস্তি হবে। এখানে কোনো তদন্তই করা হয়নি।”

গত মঙ্গলবার রাতে কোটা সংস্কার আন্দোলনে যাওয়ায় এক ছাত্রীর পায়ের রগ কাটার দায়ে বহিষ্কার করা হয় সুফিয়া কামাল হলের ছাত্রলীগ নেত্রী এশাকে।