মাত্র পাঁচজন রোহিঙ্গা ফেরত নিল মিয়ানমার!

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


নিজ ভূমি থেকে বিতাড়িত রোহিঙ্গারা পালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশে

জাতিসংঘকে, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ এবং অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলছে- রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়ার মতো বাস্তবতা সৃষ্টি হয়নি। তা সত্ত্বেও আজ শনিবার বাংলাদেশ থেকে ৫ সদস্যের এক রোহিঙ্গা পরিবারকে ফিরিয়ে নিয়েছে মিয়ানমার। খবর রয়টার্সের।

দুই বছরে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ঢাকা-নেপিদো প্রত্যাবাসন চুক্তি স্বাক্ষর হয়। এই উদ্যোগ বাস্তবায়নে মিয়ানমার রাখাইনে দুইটি অভ্যর্থনাকেন্দ্র স্থাপন করেছে।

এরআগে, জাতিসংঘের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল উরসুলা মুয়েলার সংবাদমাধ্যমকে জানান, স্বাস্থ্যসেবার অপ্রতূলতা, নিরাপত্তা নিয়ে অনিশ্চয়তা আর অব্যাহত স্থানচুত্যির ঘটনা ঘটছে ধারাবাহিকভাবে। এই পরিস্থিতি রোহিঙ্গাদের ফেরত যাওয়ার জন্য সহায়ক নয়। ভবিষ্যতেও প্রত্যাবাসন আদতে সম্ভব কিনা, তা নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেন তিনি।

শনিবার মিয়ানমার সরকারের এক বিবৃতিতে রোহিঙ্গাদের মুসলিম আখ্যা দিয়ে বলা হয়েছে, “৫ সদস্যের এক মুসলিম পরিবার আজ সকালে রাখাইনের তানজিপিওলেটওয়া অভ্যর্থনাকেন্দ্রে এসেছে।”

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “অভিবাসন ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যাচাইবাছাই শেষে তাদের ফিরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হচ্ছে। সমাজ কল্যাণ, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে তাদের চাল, মশারি, কম্বল, গেঞ্জি, লুঙ্গি সরবরাহ করা হয়েছে বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।”