খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্রের মুক্তি একই সূত্রে বাঁধা: খন্দকার মোশাররফ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


ফাইল ছবি

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্রের মুক্তি একই সূত্রে বাঁধা। কোটা পদ্ধতির দাবি আদায়ের মতোই আন্দোলনের মাধ্যমে এ দেশের মানুষ বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবে।
আজ রোববার বিকেলে রাজশাহী নগরীর ভুবন মোহন পার্কে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন ।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, আমরা কেউ জানতাম না, হঠাৎ করে একটা আন্দোলন হলো। কোটা সংস্কারের দাবিতে সাধারণ ছাত্ররা রাস্তায় নেমে গেল। আন্দোলনের তোড়ে শেখ হাসিনা কোটা পদ্ধতি বাতিল করতে বাধ্য হলেন। আগামী দিনে গণতন্ত্রের আন্দোলন, জনগণের অধিকারের আন্দোলনও সেই রকম হবে। জনগণ যখন রাস্তায় নামবে, তখন তারা খালেদা জিয়াকেও এভাবেই মুক্ত করবে। সেই আন্দোলনে রাজশাহীবাসীকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দি রাখার প্রতিবাদে রাজশাহী বিভাগীয় এই সমাবেশের আয়োজন করে বিএনপি। রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি রাসিক মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের সভাপতিত্বে এবং মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলনের সঞ্চালনায় সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান ও নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, বরকত উল্লাহ বুলু ও ব্যারিস্টার আমিনুল হক, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, জয়নুল আবদীন ফারুক, হেলালুজ্জামান তালুকদার লালু ও কর্নেল (অব.) এম এ লতিফ, যুগ্ম মহাসচিব হারুন অর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, সহসাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ শাহীন শওকত খালেক, বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতি ভিপি সাইফুল ইসলাম, রাজশাহী জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট নাদিম মোস্তফা, জেলা বিএনপির বর্তমান সভাপতি অ্যাডভোকেট তোফাজ্জল হোসেন তপু প্রমুখ।

সমাবেশে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের প্রধান অতিথি হিসেবে থাকার কথা ছিল। কিন্তু মায়ের মৃত্যুর কারণে তিনি সমাবেশে যোগ দিতে পারেননি।