সুশিক্ষিত ও আর্দশ জাতী গঠনে নূরানী মাদরাসার অবদান অনস্বীকার্য : আল্লামা শফী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | জুনাইদ আহমদ


শাইখুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী- ফাইল ছবি

ইসলাম ও জাগতিক শিক্ষার সমন্বয়ে সুশিক্ষিত-আদর্শ জাতী গঠনে নুরানী মাদরাসা শিক্ষার অবদান অনস্বীকার্য বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন দেশের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক ধর্মীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর ও হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালক শাইখুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

১৪ এপ্রিল, শনিবার নূরানী তালীমুল কুরআন বোর্ড চট্টগ্রাম বাংলাদেশের অধীনে অনুষ্ঠিত দেশব্যাপী নূরানী মাদরাসা সমুহের ২০১৭ সালের কেন্দ্রীয় পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী এ+ প্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীদের সংর্বধনা ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি৷

আল্লামা শফী আরো বলেন,পুরো বাংলাদেশের শহর, বন্দর ও প্রত্যন্ত অঞ্চলে প্রতিষ্ঠিত নুরানী মাদরাসাগুলো কোমলমতি শিশুদের মাঝে জাগতিক শিক্ষার পাশাপাশি কুরআন হাদীসের প্রাথমিক শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে। এবং সুশিক্ষিত ও আদর্শবান জাতী গঠনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। বর্তমানে নুরানী মাদরাসায় পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা দ্বীনি শিক্ষার পাশা-পাশি জাগতিক শিক্ষায়ও সমান দক্ষ হয়ে গড়ে উঠছে। একটি সুন্দর ও স্বনির্ভর দেশ গঠনে নুরানী মাদরাসাগুলোর অবদান অনস্বীকার্য ।

নুরানী মাদরাসায় কর্মরত শিক্ষকদের দৃর্ষ্টি আকর্ষন করে আল্লামা আহমদ শফী বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের স্বীয় সন্তানের মতো স্নেহ-মমতা দিয়ে শিক্ষা দিবেন তবেই আপনি প্রকৃত শিক্ষক হিসেবে গন্য হবেন এবং প্রিয় নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ঘোষিত সর্বোত্তম ব্যক্তির সম্মান পাবেন।

বোর্ডের কেন্দ্রীয় কার্যালয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হওয়া পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বোর্ডের সিনিয়র প্রশিক্ষক মাওলানা সলিমুল্লাহ খাঁন ও বোর্ডের প্রশিক্ষক ও কর্মকর্তা মাওলানা আবুল হাসেম’র যৌথ সঞ্চালনায় এতে সভাপতিত্ব করেন বোর্ডের মহাসচিব মুফতী জসিমুদ্দীন ৷

সভাপতির বক্তব্যে বোর্ডের মহাসচিব মুফতি জসিমুদ্দীন বলেন-নুরানী পদ্ধতিতে পরিচালিত মাদরাসা গুলো সুনামের সাথে শিশুদের মাঝে সুশিক্ষা প্রদান করে যাচ্ছে। প্রতিবছর নুরানীতে অধ্যায়নরত তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীরা সারা দেশে অভিন্ন প্রশ্নপত্রে উৎসব মুখর পরিবেশে কেন্দ্রীয় সনদ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে।

২০১৭ সালের কেন্দ্রীয় সনদ পরীক্ষায় লক্ষাধিক শিক্ষার্থী অংশ্রগ্রহণ করে ৮৮.০১% উত্তীর্ণ হয়। তন্মধ্যে তিন হাজার পরীক্ষার্থী এ+ প্রাপ্ত হয়। নুরানী তালীমুল কুরআন বোর্ড চট্টগ্রাম বাংলাদেশ প্রতিবারের ন্যায় এবারও তিন হাজার এ+ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের পুরস্কৃত করছে৷

অন্যানের মধ্যে  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বোর্ডের সহ সভাপতি ও মেখল হামিউসসুন্নাহ মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা নোমান ফয়জী, বোর্ডের প্রতিষ্ঠাতা সহ-সভাপতি ও পুস্তক সম্পাদক মেখল এশায়াতুসসুন্নাহ মাদরাসার পরিচালক মুফতি মোহাম্মদ আলী কাসেমী, সাংগঠনিক সম্পাদক ও আলীপুর নূরানী মাদরাসার পরিচালক মাওলানা জমির উদ্দীন, বোর্ডের প্রধান হিসাব রক্ষক ও নাজিরহাট বড় মাদরাসার মুহাদ্দিস মাওলানা সেলিমুল্লাহ, বোর্ডের আমেলার সদস্য ও ফতেপুর মাদরাসার পরিচালক মাওলানা মাহমুদুল হাসানা, মাওলানা শায়েখ শাহজাহান শাহনগরী, মাওলানা ইবরাহীম খলিল সিকদার, বোর্ড কর্মকর্তা মাস্টার আনিসুল ইসলাম, মাওলানা মাসুদুর রহমান প্রমুখ।