কালবৈশাখী ঝড়: ভোলায় নিহত ১, চার শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


দেশের বৃহত্তম দ্বীপ ভোলার লালমোহনে মঙ্গলবার দুপুরে ভয়াবহ কালবৈশাখী ঝড়ে ৫০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ প্রায় চার শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এসময় ঝড়ের কবলে পড়ে নৌকা ডুবে শুকুর মিয়া (৫০) নামে এক মাঝি মারা যান।

শুকুর মিয়া যশোর জেলার বাসিন্দা। যশোর থেকে পাটকাঠি নিয়ে তিনি ভোলার লালমোহন যাচ্ছিলেন।

এছাড়া এ ঝড়ে আরো আহত হয়েছে ১০ শিক্ষার্থী। শিক্ষার্থীদের সকলে লালমোহন কলেজিয়েট স্কুলে অধ্যয়নরত। স্কুল চলাকালীন দুপুরে ঝড় শুরু হলে স্কুলের চালা উড়ে যায়। এ ঘটনায় বিদ্যালয়টির ১০ শিক্ষার্থী আহত হয়। আহতদের মধ্যে পাঁচজনকে লালমোহন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

লালমোহন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান রুমি জানান, দুপুরের পর কালবৈশাখী ঝড় শুরু হয়। মুহূর্তের মধ্যেই ঝড়ের তাণ্ডবে উপজেলার নয়টি ইউনিয়নে ৫০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ চার শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়।

এর মধ্যে ২৫০টি আংশিক আর ১৫০টি ঘরবাড়ি সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়। পাশাপাশি প্রায় ১০০ হেক্টর ফসলী জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

অন্যদিকে, মঙ্গলবারের (১৭ এপ্রিল) ঝড়ে মনপুরায় তিন হাজার বস্তা সিমেন্টসহ একটি কার্গোবোট ডুবে ১৫ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

উপজেলার ব্যবসায়ী আমির হোসেন হাওলাদার জানান, দুপুর ২টার দিকে ঝড়ের কবলে পড়ে ঘাটে বেঁধে রাখা তার তিন হাজার বস্তা সিমেন্টসহ একটি কার্গোবোট। ঝড়ের এক পর্যায়ে কার্গোটি ডুবে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় বোটটি উদ্ধার করা সম্ভব হলেও প্রায় ১৫ লাখ টাকার সিমেন্ট নষ্ট হয়ে যায়।