‘ফারাক্কা লংমার্চ পানির ন্যায্য হিস্যা পেতে আমাদের সংগ্রামী চেতনাকে আলোড়িত করেছে’

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


ফাইল ছবি

ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী ভারতের কাছ থেকে পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় করতে হলে জাতি-ধর্ম ও দলমত নির্বিশেষে সকলের মধ্যে ইস্পাত কঠিন ঐক্য গড়ে তোলার প্রয়োজনীয়তার ওপর বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করেছেন। কারণ বিদেশের হস্তক্ষেপমুক্ত স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ গড়ে তুলতে জাতীয় ঐক্যের বিকল্প নেই। সেজন্যে প্রয়োজন জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে দেশের সকল নাগরিকের মধ্যে ঐক্য গড়ে তোলার পরিবেশ গড়ে তোলা। দেশ, জাতি ও জনগণের মধ্যে ঐক্য গড়ে তোলা ছাড়া দেশের উন্নতি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি অর্জন সম্ভব নয়। বিশে^র যেসব দেশ দ্রুত উন্নতি লাভ করেছে, সেসব দেশের জনগণ ঐক্যবদ্ধভাবে দেশের উন্নতির জন্যে কাজ করেছেন।

তিনি আজ সকালে ফারাক্কা লং মার্চের ৪২তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে নেজামে ইসলাম পার্টি আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা একেএম আশরাফুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় ফারাক্কা দিবসের বিভিন্ন দিকের ওপর আলোকপাত করে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দপ্তর সম্পাদক পীরজাদা সৈয়দ মোঃ আহসান ও ইসলামী ছাত্র সমাজের সভাপতি মোঃ নুরুজ্জামান প্রমূখ।

তিনি বলেন, সেদিন দেশের স্বাধীনতার জন্যে আত্মত্যাগের যে নজির স্থাপিত হয়েছে, সেই ত্যাগের আদর্শ গ্রহণের মধ্যেই ১৬ মে’র চেতনা নিহিত। এই অনন্য সাধারণ দিবসকে মাহাত্মশোভিত করার জন্যে প্রয়োজন ত্যাগ-তিতিক্ষার চেতনাকে উজ্জীবিত করা। আরো প্রয়োজন জাতীয় আদর্শ, ঐতিহ্য রীতি-নীতি ও স্বকীয়তা বিরোধী পথ রুদ্ধ করা এবং এদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণের চিরায়ত ইসলামী মূল্যবোধ, ধ্যান-ধারণা, চরিত্র, ধর্ম ও আদর্শ অক্ষুন্ন রাখার ক্ষেত্রে স্বচেস্ট হওয়া।

তিনি বলেন, সেদিন (১৬ মে) ভারতের কাছ থেকে গঙ্গার পানির ন্যায্য হিস্যা পেতে আমাদের সংগ্রামী চেতনাকে আলোড়িত করেছে, পানি আদায়ে ব্রতী হওয়ার জন্যে আগ্রহী করে তুলেছে এবং প্রণোদনা জুগিয়েছে। পানি আন্দোলনের নবতর অধ্যায় রচিত হয়। জোতিষ্মান করতে সক্ষম হয়েছে আমাদের মানশ্চক্ষুকে। ১৬ মে’র শিক্ষা ও অনুপ্রেরণা পানির জন্যে আন্দোলন-সংগ্রামের পথে আমাদের চালিত করবে।


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74