‘খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য প্যারোলে মুক্তির আবেদন করা হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে’

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, “কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য প্যারোলে মুক্তির আবেদন করা হলে জেল কোড অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “সিএমএইচে চিকিৎসা নিতে অনাগ্রহ প্রকাশ করেছেন খালেদা জিয়া। তার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়েও চিকিৎসার ব্যবস্থা করা আছে।”

খালেদা জিয়ার আইনজীবী ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন বুধবার খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির দাবি জানিয়েছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “খালেদা জিয়া একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও একটি বৃহত্তর রাজনৈতিক দলের প্রধান। আমরা তাঁর চিকিৎসার বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। এ কারণেই আমরা প্রথমে তাঁকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাসেবা দিতে চেয়েছি। তিনি অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। পরবর্তী সময়ে কারা কর্তৃপক্ষ তাঁকে সিএমএইচে চিকিৎসা নিতে প্রস্তাব করেছেন। এটি দেশের সব হাসপাতাল থেকে অনেক গুণে ভালো। এখানেও তিনি চিকিৎসা নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।”

এদিকে, পারিবারিক খরচে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে ভর্তি করিয়ে চিকিৎসার সুযোগ দেওয়ার জন্য গত মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বরাবর আবেদন করেছিলেন তাঁর ভাই শামীম ইস্কান্দার।

বিএনপির দাবি ও খালেদা জিয়ার পরিবারের আবেদন অনুযায়ী ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা দিতে অসুবিধা কোথায়? এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “জেলকোডের বিধান অনুযায়ী একজন কারাবন্দির পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার বিষয়ে কিছু বিধিনিষেধ রয়েছে। তাছাড়া ইউনাইটেড হাসপাতাল নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে কি না তাও খতিয়ে দেখা প্রয়োজন।”