যে কারণে জার্মানির দুই খেলোয়াড়ের জার্সি ফেরত দিলেন এরদোগান

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


বিশ্বকাপে অঘটন ঘটিয়ে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছে জার্মানি। নিজেদের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে ২-০ গেলে হেরে চলতি আসর থেকে ছিটকে পড়ে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। এ নিয়ে বিশ্বজুড়ে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। তারই জের ধরে এবার মেসুত ওজিল ও লিকে গান্ডোগানের সাক্ষর করা জার্সি ফেরত পাঠালেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান।

জার্মানির হয়ে খেলা দুই খেলোয়াড় ওজিল ও গান্ডোগান জন্মসূত্রে তার্কিশ। তাই বিশ্বকাপে অংশ নিতে যাওয়ার আগে তুরস্কের প্রেসিডেন্টের রেসেপ তাইপ এরদোগানের সাথে দেখা করে প্রেসিডেন্টকে নিজেদের সাক্ষর করা জার্সি উপহার দেন ওজিল ও গান্ডোগান। পরবর্তীতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি পোস্ট করে এমন খবর চাউর করেন ওজিল ও গান্ডোগান। ছবির সাথে ক্যাপশনে লিখেছিলেন, ‘আমাদের সম্মানীত প্রেসিডেন্টকে জার্সি উপহার।’

বিন্তু ক্যাপশন জার্মানির খেলোয়াড় হয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্টকে কেন ‘আমাদের’ বললেন গান্ডোগান? এতে বিশ্বকাপের আগে সমালোচনা-বিতর্ক উঠে তুঙ্গে। এমনকি ওজলি-গান্ডোগানকে জাতীয় দল থেকে বাদ দেয়ার সুর তুলে জার্মান সমর্থকরা।

সে সময় এসব বির্তক সামাল দিয়ে কোচ জোয়াকিম লো ঐ বির্তক ধামাচাপা দিয়েছিলেন। তবে বিশ্বকাপে হারের পর আবারো নেড়েচড়ে উঠলো বির্তক। কারণ ওজিল-গান্ডোগানের সই করা জার্সি জার্মানিতে ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান। ও পাঠান তিনি।

সাথে একটি বার্তায় জানানো হয়েছে, ওজিল-গান্ডোগান বিশ্বকাপে ভালো করবেন, এমনটা আশা করেছিলেন এরদোগান। কিন্তু, ওজিল-গান্ডোগান হতাশ করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্টকে। তাই জার্সি ফেরত পাঠানো হল। ভবিষ্যতে তাদের সাথে কোন সম্পর্ক থাকবে না এরদোগানের। পাশাপাশি কখনও যেন এরদোগানকে নিজেদের প্রেসিডেন্ট না বলে ওজিল-গান্ডোগান।