এ হামলায় প্রমান করে তারা দাড়ি-টুপি, আলেম ও ইসলাম বিদ্বেষী: খেলাফত আন্দোলন

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


কোটা সংস্কার আন্দোলনের শিক্ষার্থীদের দমনের নামে মাদরাসার শিক্ষক আলেম ও নিরাপরাধ পথচারীদের উপর হামলা, গ্রেফতার ও নির্যাতনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ।
তারা বলেন, গত রবিবার বেলা চারটার দিকে পিজি হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ফিরার পথে শাহবাগ থানার নিকটে একজন মাদরাসার শিক্ষক, বিশিষ্ট আলেম মুফতি হুজাইফাকে রিক্সা থেকে টেনে হিচড়ে নামিয়ে তার উপর কিল-ঘুষিসহ বর্বর নির্যাতন চালায়। এ হামলায় প্রমান করে তারা দাড়ি-টুপি, আলেম ও ইসলাম বিদ্বেষী।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, কোটা সংস্কারের দাবি প্রধানমন্ত্রী মেনে নেয়ার পরও নিরাপরাধ শিক্ষার্থী, আলেম ও পথচারীদের উপর সরকার দলীয় ছাত্র সংগঠনের ছাত্র লীগের ক্যাডারদের বর্বর হামলা ও নির্যাতন অমানবিক ও সন্ত্রাসী কাজ। তাদের এ আচরনে আবারো প্রমান হলো এ বর্বর হায়ানাদের হাতে নিরাপরাধ আলেম, পথচারীরা, নারী ও রোগীরাও নিরাপদ নয়। একটি স্বাধীন দেশে সরকারের কাছে যে কোন ন্যায্য দাবি জানানো জনগণের নাগরিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার। এ অধিকার খর্ব হলে আর গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র থাকে না। সভায় অপরাধীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্ত মূলক বিচারের দাবি জানানো হয়।

আজ বিকালে রাজধানী ঢাকার কামরাঙ্গীরচরে জামিয়া নুরিয়া মাদরাসায় খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত আল্লামা শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দলের নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন, মাওলানা সানাউল্লাহ মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী ও মাওলানা মাসুদুর রহমান প্রমুখ।