ত্রিশালে মুক্তিযোদ্ধাকে গলা কেটে হত্যা

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


প্রতিকী ছবি

ময়মনসিংহের ত্রিশালে আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন মাস্টার (৭২) এর গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

আজ ৪ জুলাই বুধবার সকালে তার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে ত্রিশাল থানা পুলিশ।

নিহত মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মতিন মাস্টার উপজেলার মঠবাড়ী ইউনিয়নের ঘা-গাটি গ্রামের ৮নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও আওয়ামী লীগের সভাপতি। তিনি স্থানীয় ঘা-গাটি জামতলী মাদরাসার সহকারী শিক্ষক ছিলেন বলে জানিয়েছেন ত্রিশাল সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুর রকিব খান।

স্থানীয়রা জানায়, প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার রাতেও আবদুল মতিন তার বাড়ির পাশে ফিসারিতে রাত্রিযাপনের জন্য বের হন। ফজরের নামাজ পড়তে মসজিদে না আসায় মুসল্লিরা তার ফিসারির ঘরে খোঁজ করেন। সেখানে তাকে না পেয়ে বাড়িতে খুঁজতে যান। তখন তার পরিবারের সদস্যরাও আশপাশে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। পরে ভোর ৬টার দিকে ফিসারির পানিতে মতিন মাস্টারের গলাকাটা লাশ দেখতে পান তারা। পরে পুলিশকে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে রাতেই তাকে গলা কেটে হত্যা করে পুকুর পাড়ে লাশ ফেলে রেখে যায় দুর্বৃত্তরা। তবে কে বা কারা তাকে কী কারণে হত্যা করেছে তা জানাতে পারেনি পুলিশের কর্মকর্তারা।

নিহতের ছেলে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান বলেন, আমার বাবা সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত ছিলেন। পূর্বশত্রুতার জের ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছে।

ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) এরশাদ উদ্দিন জানান, জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আমরা গভীরভাবে শোকাহত এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে খুনিদের বিচারের আওতায় আনা হবে।