জানুয়ারি ২৩, ২০১৭

জিম্মি বাবুর্চিকে সন্ত্রাসী ভেবে হত্যা করা হয়েছে: পুলিশ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

s20160703184156_134088গুলশানের একটি রেস্তোরাঁয় নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে যে ছ’জন ‘হামলাকারী’ নিহত হয়েছে তাদের একজনের পরিচয় নিয়ে প্রশ্ন ওঠার পর পুলিশ বলছে, তাদের একজনকে ভুলবশত হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে।

কর্মকর্তারা বলছেন, নিহত ওই ব্যক্তি হয়তো হামলাকারীদের হাতে জিম্মি হয়েছিলেন। কিন্তু তাকে হামলাকারী ভেবে হত্যা করা হয়েছে।

ঢাকায় পুলিশের একজন শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, নিহত ওই ব্যক্তির নাম সাইফুল ইসলাম চৌকিদার। হলি আর্টিজান বেকারিতে তিনি পিৎজা বানাতেন।

শনিবার সকালে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে কমান্ডো অভিযানের পর আইএসপিআরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিলো তারা ছ’জন সন্ত্রাসীকে হত্যা করেছে।

কিন্তু আই এসের দেওয়া পাঁচজন সন্ত্রাসীর ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ার প্রশ্ন উঠে আরেকজন ‘সন্ত্রাসী’ তাহলে কে?

এর মধ্যেই পুলিশ নিহত পাঁচজনের মরদেহের ছবি প্রকাশ করে।

তখন প্রশ্ন উঠে আইএসপিআরের বক্তব্য অনুযায়ী আরেকজন হামলাকারী কোথায় গেলো।

তারপরেই ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে পুলিশ যে ৫ জনের মৃতদেহের ছবি প্রকাশ করেছে তাদের একজন সন্ত্রাসী নন। তিনি ওই রেস্তোরাঁর একজন বাবুর্চি। হামলার সময় জিহাদিরা তাকেও জিম্মি করেছিলো।

হামলার চারদিনের মাথায় ঢাকার গুলশান থানায় সন্ত্রাস দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ওই মামলায় পাঁচজন সন্ত্রাসীসহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজন ব্যক্তিকে আসামী করা হয়েছে।

ছ’জন সন্ত্রাসীকে হত্যা করা হয়ে থাকলে পাঁচজনকে আসামী করা হলো কেনো বিবিসি বাংলার এই প্রশ্নের জবাবে ওই থানার একজন পুলিশ বলেছেন, নিহতদের মধ্যে একজন ওই রেস্তোরাঁর কুক ছিলেন বলে তারা পরে জানতে পেরেছেন।

তবে ওই কুক নিরাপত্তার বাহিনীর গুলিতে নাকি হামলাকারীদের হাতে মারা গেছেন সে বিষয়ে তিনি কিছু বলেন নি।

 সূত্র: বিবিসি