আন্দোলন হলেও আটককৃতদের ছাড়া হবে না, মুক্তিযোদ্ধা কোটা থাকবে: প্রধানমন্ত্রী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, “সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা থাকবে এবং কোটা সংস্কারের আন্দোলনের সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাড়িতে হামলার অভিযোগে যারা গ্রেপ্তার হয়েছেন, তাদেরকে আন্দোলন হলেও ছাড়া হবে না।”

বৃহস্পতিবার সংসদে ভাষণে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় তিনি জানান, ” মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল রাখতে হাই কোর্টের রায় রয়েছে।”

এরআগে সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’ আন্দোলনের এক পর্যায়ে গত ১১ এপ্রিল সংসদে কোটা বাতিলের কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে, আজ সংসদ অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে শেখ হাসিনা বলেছেন, “মুক্তিযোদ্ধাদের যে কোটা, তাতে হাই কোর্টের রায় রয়ে গেছে। যেখানে হাই কোর্টের রায় আছে যে, মুক্তিযোদ্ধাদের কোটা সংরক্ষিত থাকবে। তাহলে আমরা কীভাবে কোর্টের ওই রায় ভায়োলেট করব? সেটা তো আমরা করতে পারছি না।”

তিনি বলেন, “আমি তো বলেছি টোটাল কোটা বাদ দিতে। কিন্তু হাই কোর্টের রায় রয়েছে। এই রায় অবমাননা করে তখন তো আমি কনটেম্পট অব কোর্টে পড়ে যাব। আমরা তো কেবিনেট সেক্রেটারি দিয়ে একটি কমিটিও করে দিয়েছি। তারা সেটা দেখছে। তাহলে এদের অসুবিধাটা কোথায়?”

এছাড়া, কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এটা কি আন্দোলন না কি? উচ্ছৃঙ্খলতা কখনও বরদাস্ত করা যায় না।”

তিনি বলেন, “ক্যামেরা দেখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাড়িতে হামলাকারীদের একটা একটা করে খুঁজে বের করা হচ্ছে। ভিসির বাড়িতে যারা ভাংচুর অগ্নিসংযোগ করেছে, আক্রমণ করেছে, তাদের তো ছাড়া হবে না। তাদের ছাড়া যায় না। তাদেরকেই গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। তদন্ত করা হচ্ছে। অনেকে স্বীকারও করছে।”

শেখ হাসিনা আরও বলেন, “যত আন্দোলনই হোক না কেন এদের ছাড়া হবে না। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতেই হবে। কারণ এরা লেখাপড়া শিখতে আসেনি।”


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74