মহাসড়ক ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠে পশুর হাট বসতে দেয়া হবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


ফাইল ছবি

ঈদুল আজহা উপলক্ষে মহাসড়ক, রেললাইন এবং আবাসিক এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠে পশুর হাট বসতে দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

তিনি বলেন, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২২ আগস্ট ঈদুল আজহা পালিত হবে। এ উপলক্ষে পশুরহাটগুলোতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। হাটের নিরাপত্তায় পুলিশ ও র‌্যাব ক্যাম্প স্থাপন করা হবে। একই সঙ্গে প্রত্যেকটি হাটে সিসি ক্যামেরা দিয়ে মনিটরিং করা হবে।

তিনি রবিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ১৫আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ও ঈদুল আজহা উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিষয়ক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নিরাপদে বড় বড় লেনদেনের সুবিধার্থে হাটগুলোতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মানি স্কোয়াড টিম থাকবে। জাল টাকা শনাক্ত করার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক এবং ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) জালনোট শনাক্তকরণের মেশিন বসাবে।

তিনি বলেন, পশুবাহী যানবাহন কোন হাটে যাবে সেটা ব্যানারে ট্রাকের সামনে টানিয়ে রাখতে হবে। তাহলে কেউ জোর করে গাড়ি থামিয়ে অন্য হাটে নিতে পারবে না। গরু মোটাতাজা করার ওষুধ সম্পর্কে পশুসম্পদ মন্ত্রণালয় সিটি করপোরেশনকে তালিকা দেবে। এ ধরনের ওষুধ যেন হাটে প্রবেশ করতে না পারে সে ব্যবস্থা থাকবে।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন,চামড়া পাচার রোধে গোয়েন্দারা কাজ করবে এবং একই সাথে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সতর্ক থাকবে । কোনোভাবেই চামড়া পাচার হতে দেয়া হবে না।

তিনি বলেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় গরুর হাট বসবে ২২টি। যদি পরবর্তীতে হাট বৃদ্ধি পায় তাহলে হবে সর্বোচ্চ ২৯টি হবে। তবে মহাসড়ক, রেললাইন এবং আবাসিক এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠে কোন পশুর হাট বসবে না। এছাড়া গরুর হাটের সীমানার বাইরে কোন হাটও বসতে দেয়া হবে না। কারও কাছ থেকে অতিরিক্ত খাজনা আদায় করা যাবে না বলেও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উল্লেখ করেন।
তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট পালন উপলক্ষে রাজধানী ও এর বাইরে অন্যান্য স্থানে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বাসস।