জানুয়ারি ২০, ২০১৭

এই দুই জেনারেল ছিলেন অভ্যুত্থানের মূল পরিকল্পনাকারী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

turosta_135180তুরস্কের ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানের জন্য দেশটির সেনাবাহিনীতে শুদ্ধি অভিযান চলছে। ৮৩৯ সামরিক সদস্যকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে দুই শীর্ষ কর্মকর্তাও রয়েছেন। তারাই অভ্যুত্থানচেষ্টার মূল নায়ক বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এরা হলেন থার্ড আর্মির কমান্ডার জেনারেল এরদাল ওজতুর্ক এবং সেকেন্ড আর্মির কমান্ডার জেনারেল আদেম হুদুতি।

পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক তুরস্কের এক কর্মকর্তা আল জাজিরাকে বলেন, অভ্যুত্থানকারীরা বেশ কিছু সময় নিয়ে এর পরিকল্পনা করেছিলেন। আসন্ন সুপ্রিম মিলিটারি কাউন্সিল সভা হয়ে যেতে পারলে সুযোগ হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে আশঙ্কা করে তারা শুক্রবারেই কাজে নেমে পড়ে।

শুক্রবার ১৯.৩০ জিএমটি সময়ে অভ্যুত্থানচেষ্টা শুরু হয়ে যায়। অভ্যুত্থানচেষ্টার সাথে জড়িত সৈন্যরা ইস্তাম্বুলে বসফোরসের দুটি গুরুত্বপূর্ণ সেতু আংশিক বন্ধ করে দিয়ে তাদের কাজ শুরু করে।

তাদের প্রধান লক্ষ্য ছিল বসফোরাস সেতু বা তাকসিম স্কয়ারের মতো প্রধান এলাকাগুলো দখল করা।

আঙ্কারায় তারা প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ, প্রধানমন্ত্রীর অফিস, জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা এবং পার্লামেন্ট ভবন দখল করার চেষ্টা করে। তারা স্যাটেলাইট অবকাঠামোও দখল করার চেষ্টা করে।

জেনারেল এরদাল ওজতুর্ক এবং জেনারেল আদেম হুদুতি ছিলেন মূল পরিকল্পনাকারী। এদের মধ্যে ওজতুর্ক ছিলেন আরো এগিয়ে। ধারণা করা হচ্ছে, ক্যু সফল হলে তিনিই হলেন সামরিক জান্তার প্রধান।