একটা কিছু হতে পারে, সবাইকে সজাগ থাকতে হবে: সৈয়দ আশরাফ

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামদেশের চলমান পরিস্থিতিতে সবাইকে আরো সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, রাজনীতিতে নীরবতা রয়েছে। ভয় এখানেই। মনে রাখবেনঝড়-বৃষ্টি নাই, গাছের পাতা নড়ছে না, তখন বুঝতে হবে একটা কিছু হতে পারে। তাই আমি ইঙ্গিত দিয়ে বললাম সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

তিনি বলেন, দেশে যাতে পঁচাত্তরের মত এমন কোনো ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হয় এর জন্য সবার সজাগ থাকার প্রয়োজন আছে। আপনাদের সব সময় মনে মনে একটা প্রস্তুতি রাখা দরকার।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর আইডিইবি ভবনে মুক্তিযোদ্ধাদের এক আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন । মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

সৈয়দ আশরাফ বলেন, আমি কোনো রাজনৈতিক বক্তব্য দেব না। যা বলব ইশারা-ইঙ্গিতে বুঝে নেবেন। স্বাধীনতার পর স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধুকে আমরা রক্ষা করতে পারিনি। দ্বিতীয়বার যাতে ওই ধরনের ঘটনা ঘটতে না পারে, সে জন্য আমাদের সতর্ক থাকতে হবে।

স্বাধীনতার স্থপতিকে পরিবার-পরিজনসহ হত্যার ঘটনা পৃথিবীর ইতিহাসে নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বাঙালি যেমন বীরের জাতি, তেমনি বেইমানের জাতি। তাই আমাদের সজাগ থাকার প্রয়োজন আছে। মনে মনে প্রস্তুতি রাখারও প্রয়োজন আছে।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য নানা উদ্যোগের কথা তুলে ধরে বলেন, এ বছর থেকেই মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে। এ বছর থেকেই মুক্তিযোদ্ধারা দুটি উৎসব বোনাস পাবেন, যার পরিমাণ ২০ হাজার টাকা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবারই এ বিষয়ে অনুমোদ দিয়েছেন।

শিগগিরই মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা যাচাই-বাছাই করে সবাইকে চূড়ান্ত সনদ ও পরিচয়পত্র দেওয়ার কথাও জানান মন্ত্রী। পাশাপাশি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকাও যাচাই-বাছাই করার কথা তুলে ধরেন তিনি।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের চেয়ারম্যান হেলাল মোর্শেদ খানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা মুক্তিযোদ্ধারা বক্তব্য দেন। আলোচনা সভা শেষে মিছিলসহ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের শিখা চিরন্তনে গিয়ে শপথ নেন মুক্তিযোদ্ধারা।