গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তির দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করছে শিক্ষার্থীরা

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


আন্দোলন চলাকালে গ্রেপ্তারকৃত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করেছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

ক্লাসের পাশাপাশি বুধবার থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে সেমিস্টারের ফাইনাল পরীক্ষা একযোগে শুরু হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু হঠাৎ করেই গ্রীষ্মকালীন সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা স্থগিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ওয়েবসাইটে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার ফয়জুল ইসলামের স্বাক্ষরিত নোটিসে বলা হয় ২০১৮ সালের গ্রীষ্মকালীন সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা স্থগিত করা হল। ঈদের পর পরীক্ষার নতুন সময়সূচি জানিয়ে দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে ইংরেজি বিভাগের ১২তম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী আদিত্য আহসান বারি গণমাধ্যমকে বলেন, “আমাদের ভাইরা রিমান্ডে, আমাদের ছোট ভাইবোনদের দাবি পূরণ হয়নি, হামলা হয়েছে আমাদের উপর। সব মিলিয়ে আমাদের মানসিক পরিস্থিতিও নেই পরীক্ষা দেওয়ার, ক্লাস করার। গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তি না দেওয়া পর্যন্ত আমরা ক্লাসে যাব না।”

এদিকে, মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) শান্ত মারিয়াম বিশ্ববিদ্যালয়েও পরীক্ষা ও ক্লাস স্থগিতের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পরবর্তি নোটিশ না দেওয়া পর্যন্ত ক্লাস ও পরীক্ষা স্থগিত থাকবে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানিয়েছে, ছাত্ররা ক্লাসে অংশ নিচ্ছেন না। এ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই ক্লাস পরীক্ষা শুরু করা হবে।

অন্যদিকে, ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয় গতকাল মঙ্গলবার ও আজ বুধবার ছুটি ঘোষণার পাশাপাশি পরীক্ষাও স্থগিত করে।

এছাড়া, ইউনাইটেড ইউনিভার্সিটি তাদের সামার সেশনের পরীক্ষা ঈদের পরে নেবে বলে ঘোষণা দিয়েছে।

এরআগে নিরাপদ সড়কের আন্দোলনের মধ্যে পুলিশের উপর হামলা ও ভাঙচুরের দুই মামলায় বেসরকারি ইস্ট ওয়েস্ট, নর্থ সাউথ, সাউথইস্ট ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২ ছাত্রকে মঙ্গলবার রিমান্ডে নেয় পুলিশ। এদের মধ্যে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের ৭ম সেমিস্টারের ছাত্র রিফাত রেজা আখলাক রয়েছেন।