শাইখুল হাদীস রহ. হাদীসের মসনদে একজন মুকুটবিহীন সম্রাট ছিলেন: আল্লামা বাবুনগরী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | হাটহাজারী প্রতিনিধি


দেশের সর্ববৃহৎ অরাজনৈতিক ধর্মীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও হাটহাজারী মাদরাসার সহযোগী পরিচালক শাইখুল হাদীস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, শাইখুল হাদীস আল্লামা আজিজুল হক রহ. হাদীসের মসনদে একজন মুকুটবিহীন সম্রাট ছিলেন। অর্ধ শতাব্দীরও অধিক সময় তিনি সর্বোচ্চ হাদীস গ্রন্থ”বোখারী শরীফের”পাঠদান করেছেন। এবং বোখারী শরীফের প্রথম বঙ্গানুবাদক হিসেবেও তিনি কৃতিত্ব অর্জন করেছেন।

৮ আগস্ট বুধবার শাইখুল হাদীস রহ.তিরোধানের স্মৃতিচারণ করে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি এ সব কথা বলেন৷

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, একজন বিদগ্ধ গবেষক হিসেবে অধ্যাপনার পাশাপাশি তিনি সারা দেশে ইসলামের দাওয়াত নিয়ে উপস্থিত হতেন। তাঁর মর্মস্পর্শী বয়ানে হাজারো মানুষ আত্নার খোরাক পেতো। বয়ান বক্তৃতায় বলিষ্ট কন্ঠে তিনি ইসলাম বিরোধি কর্মকান্ডের জোরালো প্রতিবাদ করতেন। তাঁর দীপ্ত হুংকারে থরথর কাঁপত বাতিলের হৃদয়।

স্মৃতিচারণ করে আল্লামা বাবুনগরী আরো বলেন, ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ ভাঙ্গনের প্রতিবাদে তিনি ভারত অভিমুখে ঐতিহাসিক লংমার্চের ডাক দিয়েছিলেন। তাঁর নেতৃত্বে পালিত সে লংমার্চ বাংলাদেশের ইতিহাসে আজো স্মরণীয়। পরে ১৯৯৩ সালের ২-৪ জানুয়ারী বাবরি মসজিদ পূনঃনির্মাণের দাবিতে তিনি ঢাকা থেকে যশোর সীমান্তের উদ্যেশ্যে লংমার্চের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

ইংরেজ খেদাও আন্দোলনেও তিনি বিশেষ ভূমিকা পালন করেছিলেন। ইংরেজ বিরোধি আন্দোলনের কারণে তিনি অনেক নির্যাতও সহ্য করেছিলেন। ইতিহাসের পাতায় যা আজো সংরক্ষিত আছে,থাকবে। তাঁর শুণ্য স্থান কভু পূরণ হবে না।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, শাইখুল হাদীস আল্লামা আজিজুল হক রহ.ইসলামী রাজনীতির অদ্বিতীয় ব্যক্তিত্ব ছিলেন। ইসলামী রাজনীতিতে তাঁর নিরলস পরিশ্রম, অদম্য স্পৃহা আর অসীম সাহস চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। ওলামায়ে কেরামগণ তাঁর আদর্শে আদর্শিত হয়ে ইসলামি রাজনীতি সহ দরস-তাদরীসে নিয়োজিত থাকলে এ দেশে বাতিল অপশক্তির মূলোৎপাঠন ও ইসলামী রাজনীতির মহান বিপ্লব ঘটবে বলে আমি মনে করি।